২৬শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়া রিকশাচালকের পাশে ছাত্রলীগ সভাপতি

ছেলেটির নাম বাপ্পী। দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ থানার মন্ডলপাড়া গ্রাম থেকে ৫ দিন আগে ঢাকায় এসেছে ভাগ্যবদলের আশায়। কামরাঙ্গীচরের এক গ্যারেজ থেকে রিক্সা ভাড়া নিয়ে সে চালানো শুরু করে। ঢাকায় নতুন হওয়ায় রাস্তা ঘাট সে একটু কম চিনবে এটাই স্বাভাবিক।

মঙ্গলবার সে রিক্সা চালিয়ে এসেছিল প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। রাত ৯টা ৪০ মিনিটের দিকে স্যার এফ রহমান হলের সামনে এই নিরীহ ছেলেটি অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে এবং তার রিক্সা চুরি করে তারা। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা তাকে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের কাছে।

এই নিরীহ রিক্সা চালকের সমস্যার কথা শুনে ছাত্রলীগ সভাপতি তৎক্ষণাৎ সমস্যাটিকে নিজের সমস্যা মনে করে লালবাগ জোনের ডিসি ইব্রাহিমকে ফোন দেন। এরপর নিরীহ লোকটির উপর গ্যারেজ মালিক যেন কোন পাশবিক নির্যাতন না করে তা নিশ্চিতে নগদ দশ হাজার টাকা অর্থ সহায়তা প্রদান করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক রিয়াদ হাসান ও জহুরুল হক হল ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমির হামজাকে কামরাঙ্গীচর থানায় রিক্সা চালককে সাথে নিয়ে যাওয়ার নির্দেশ প্রদান করেন তিনি।

ছাত্রলীগের এই দুই নেতা রিকশাচালক বাপ্পীর সমস্যার সমাধান নিশ্চিত করেছেন বলে জানান।

সীমান্তে বিএসএফ-এর গুলিতে নিহত শিশু ফালানীর অসচ্ছল পরিবারের পাশে দাঁড়াতে এর আগে কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলা পরিষদ চত্বরে ফেলানীর বাবা নুরুল ইসলাম নুরু, মা জাহানারা বেগম ও দুই বোনকে একটি গরু প্রদান করেন ছাত্রলীগ সভাপতি মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। এ সময় তিনি ফালানীর দুই বোনের লেখাপড়া করার ক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসনকে সহায়তা করার আহ্বান জানান।

আরও পড়ুন