১৭ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |
  • প্রচ্ছদ
  • অতিথি পাখির কলতানে মুখরিত লাল-সবুজের জাবি ক্যাম্পাস
  • অতিথি পাখির কলতানে মুখরিত লাল-সবুজের জাবি ক্যাম্পাস

    জাকির হোসেন জীবন, জাবি প্রতিনিধি:
    নানা জল্পনা কল্পনা শেষে অতিথি পাখিদের তিনটি বড় ঝাঁক গত ৬ ডিসেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের লেকে এসেছে।
    প্রতিবছর এর তুলনায় এবার পাখি একটু দেরিতে আসায় নানাজনের মধ্যে প্রশ্নজাগে এবার পাখি আসবে কি না! গতবছর পাখির দ্রুত ক্যাম্পাস ত্যাগ ও এবার দেরিতে পাখি আসাকে প্রশাসন স্বাভাবিক ভাবে দেখলে ও বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রানীবিদ্যা বিভাগ ও পাখি গবেষকগন বিষয়টি নিয়ে বেশ চিন্তিত।
    প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি জাহানঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সৌন্দয্যে অন্যতম অনুষঙ্গ হচ্ছে অতিথি পাখি। কিন্তু অতিরিক্ত পর্যটক ও বহিরাগত অতিথিদের উপদ্রুবে এক দিকে যেমন নষ্ট হচ্ছে ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরীণ পরিবেশ অন্যদিকে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে অতিথি পাখির বাসস্থান।
    অতিথি ও বহিরাগতদের নিয়ন্ত্রণের ব্যাপারে প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ভাবছে না। প্রশাসনের ভাষ্যমতে রাষ্ট্রীয় তহবিলে পরিচালিত হওয়া সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে যে কেউই বেড়াতে আসতে পারে বা আসার অধিকার রাখে। তবে প্রশাসনের অনুরোধ ” ক্যাম্পাসের পরিবেশে যাতে কষ্ট না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে”।
    সরেজমিনে দেখা যায় অতিথি পাখি বিশ্ববিদ্যালয়ের যে ৪ টি লেকে বসে তার ২ টি তেই লেকের পানির মধ্যে ময়লা- আবর্জনা , চিপসের প্যাকেট,পানির বোতল , ঝালমুড়ির ঠোঙ্গা ফেলে পানি দূষিত করা হয়েছে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের কোনো তৎপরতা লক্ষ্য করা যায়নি।
    তাছাড়া যততত্র গাড়ি পাকিং এবং গাড়ির হর্ণ অতিথি পাখিদের বিরক্ত করছে। বন্ধের দিন গুলিতে অতিরিক্ত দর্শনাথীর কারনে পাখি বিরক্ত হয়ে মূল লেক ছেড়ে চলে যাচ্ছে ক্যাম্পাসের সুইজারল্যান্ড ও রাঙ্গামাটির লেকে।
    অতিথি পাখি সম্পর্কে সবার মাঝে সচেতনতা বাড়াতে আগামী ১১ জানুয়ারী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ্য থেকে পাখি মেলার আয়োজন করা হবে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগ।

    জনশক্তি/এমএইচ

    আরও পড়ুন

    [X]