১৭ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |
  • প্রচ্ছদ
  • অপপ্রচারের বিরুদ্ধে মামলা করব: ফখরুল
  • অপপ্রচারের বিরুদ্ধে মামলা করব: ফখরুল

    জনশক্তি রিপোর্ট: রাষ্ট্রীয় অর্থের অপব্যবহার করে বিরোধী দলের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, এখন থেকে অপপ্রচারের বিরুদ্ধে মামলা শুরু করব। দেখব- সরকার কী ব্যবস্থা নেয়।

    রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সোমবার আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কথা বলেন।

    তিনি বলেন, সরকার জাতীয় নির্বাচনের আগে অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে, সুচিন্তিতভাবে ভয়াবহ-জঘন্য রকমের অপপ্রচারে মেতে উঠেছে। এটা করতে গিয়ে সরকারি অর্থ ব্যয় করে সোশ্যাল মিডিয়া, দেশের প্রিন্টিং মিডিয়াসহ বিভিন্ন মাধ্যম ব্যবহার করছে। এসবের মাধ্যমে সরকারি দল ও মন্ত্রীরা জঘন্য মিথ্যাচার শুরু করেছেন।

    বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, রোববার বিভিন্ন পত্রিকায় একটা নিউজ ছাপানো হয়েছে- পাকিস্তানের দূতাবাসের সঙ্গে আমরা বৈঠক করেছি এবং তথাকথিত আইএসআইর সঙ্গে লন্ডনে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান বৈঠক করেছেন। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও তাদের একজন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এটা বলেছেন। ওবায়দুল কাদেরের মতো একজন দায়িত্বশীল মন্ত্রীর মুখে যদি এ ধরনের দায়িত্বজ্ঞানহীন, মিথ্যাচার হয়; তা শুধু অপ্রত্যাশিত ও অনাকাঙ্ক্ষিত নয়; রাজনৈতিক শিষ্টাচারের প্রতিও জঘন্য আঘাত। এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করছি।

    তিনি বলেন, খুব দৃঢ়ভাবে ঘোষণা করছি-এ ধরনের কোনো বৈঠক কখনোই অনুষ্ঠিত হয়নি এবং লন্ডনেও তারেক রহমানের সঙ্গে কোনো সংস্থার বৈঠক হয়নি। এটা শুধু বিএনপিকে হেয় প্রতিপন্ন করা এবং জঘন্য মিথ্যাচার। এ ধরনের বক্তব্য প্রত্যাহার করার জোর দাবি জানাচ্ছি। অন্যথায় আইনগত ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবো।

    বিএনপি সমর্থিত সোশ্যাল মিডিয়ার অ্যাক্টিভিস্টদের গ্রেফতারের অভিযোগ করে তিনি বলেন, তারা ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট করেছেন, আইসিটি অ্যাক্ট, ৫৭ ধারা করেছেন। এসব করতে গিয়ে স্বাধীন চিন্তা, মুক্তচিন্তা, বাক স্বাধীনতাকে হরণ করেছেন।

    মির্জা ফখরুল আরও বলেন, জানামতে, অপপ্রচার চালাতে তিন শতাধিক আইডি খোলা হয়েছে। তাদের একমাত্র কাজ হচ্ছে বিএনপি ও বিরোধী দলের নেতাদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার, নোংরা ছবি, বানোয়াট গল্প প্রচার করা।

    সংবাদ সম্মেলনে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু, ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কেন্দ্রীয় নেতা জিএম ফজলুল হক, শহীদুল ইসলাম বাবু ও আবদুল আউয়াল খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

    আরও পড়ুন

    [X]