২৮শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
পুলিশ বাহিনীকে দুর্নীতি ও মাদকমুক্ত করার পদক্ষেপ সিঙ্গাইরে সাত মামলার পলাতক আসামি ডাকাত রিয়াজুল গ্রেফতার এক দিনে ৪৭ মামলার রায়, হাসিমুখে বাড়ি ফিরলেন ৪৬ দম্পতি নোয়াখালী জেলা রোভারের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল অনুষ্ঠিত যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ পরশ ও যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের ভার্চুয়াল সভা পৌর নির্বাচন ও দলীয় কাউন্সিলকে সামনে রেখে সিঙ্গাইর উপজেলা আ.লীগের বর্ধিত সভা গৃহকর্মীকে ধর্ষণের পর সাততলা থেকে ফেলে দেওয়া হয় ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ: মজনুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ঢাকা মহানগর উত্তর আ.লীগের অর্থ সম্পাদক হলেন শিল্পপতি সালাম চৌধুরী টিউশন ফি ছাড়া অন্য খাতে অর্থ নিতে পারবে না স্কুল-কলেজ
  • প্রচ্ছদ
  • ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে হবেনা ২২দিন: জেলা প্রশাসক




  • ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে হবেনা ২২দিন: জেলা প্রশাসক

    নিজস্ব প্রতিনিধি: ভোলায় ইলিশের ভরা প্রজনন সময়ে ২২ দিন মাছ ধরা বন্ধ থাকাকালীন সময়ে ঋণগ্রস্ত জেলেদের কাছ থেকে ঋণের কিস্তি আদায় না করার জন্য বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ( এনজিও) গুলোর প্রতি নির্দেশ প্রদান করলেন জেলা প্রশাসক।

    মেঘনা নদীর প্রায় ৫০ কিলোমিটার চষে বেড়ানোর সময় বিভিন্ন মাছঘাট এলাকায় গিয়ে জেলেদের নিয়ে সমাবেশ করেন। ওই সময় ঋণগ্রস্ত জেলেরা কিস্তির বিষয় তুলে ধরলে জেলা প্রশাসক ২২ দিন কিস্তির টাকা পরিশোধ করা লাগবে না বলে ঘোষনা দেন। একই সঙ্গে সুবিধা বঞ্ছিত বেদে জেলেদের নদীতে মাছ না শিকারে পরিবারগুলোকে চাল দেয়ার আস্বস্ত প্রদান করেন।

    ইলিশ উৎপাদন বাড়াতে ডিম ছাড়ার পরিবেশ নিশ্চিত করতে বিশেষ এ উদ্যোগ সাধুবাদ জানিয়েছেন নাগরিক সমাজ। এতদিন সরকারের সুবিধা না পাওয়ায় ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা মানতে নারাজ ছিলেন বেদে জেলেরা।

    জেলা প্রসাশক তার বিশেষ উদ্যোগে প্রতি পরিবারকে চাল দিতে হ্যান্ড মাইকে ঘোষনা দেন। নির্দিষ্ট ঠিকানা না থাকায় জাতীয় পরিচয়পত্র, জন্ম নিবন্ধন সনদও ভিজিডি, ভিজিএফ, বয়স্কভাতা, বিধবাভাতাসহ সরকারের সকল সুবিধা থেকে বেদে জেলেরা বঞ্চিত, নৌকায় এদের জীবনও বসবাস, নদীতে জাল ফেলে মাছ ধরে তা বিক্রি করেই সংসার চলে। সরকারের সুবিধা থেকে এরা বঞ্চিত সব সময় সব বিবেচনায় সরকারের সকল সুবিধা পাওয়ার আশ্বাস প্রদান করেন।

    এদিকে মৎস্য কর্মকর্তা আজাহারুল ইসলাম বলেন দেশের ইলিশ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা হচ্ছে সাড়ে ৫ লাখ মেট্রিক টন।ভোলায় গত বছর উৎপাদিত হয়েছে এক লাখ ৩০ হাজার মেট্রিক টন। এ বছর দেড়লাখ মেট্রিক টন ছাড়িয়ে যাবে। লক্ষ্যমাত্রা প্রায় দুই লাখ মেট্রিক টন। ভোলাতে উৎপাদনের হার হবে দেশের উৎপাদনের প্রায় ৪০ ভাগ। এমন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ইলিশের ভরা প্রজনন সময় নিশ্চিত করতে হবে। সাগর থেকে মিঠা পানির এ অঞ্চলে উঠে আসা ইলিশের ডিম ছাড়ার সময় যাতে ব্যাহত না হয় ওই পরিবেশ রক্ষায় সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানানো হয়।

    সে সময় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আজাহারুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কামাল হোসেন, উপজেলা সহকারী কমিশনার ( ভূমি) মোঃ কাওছার হোসেন, উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান। এ ছাড়া ছিলেন পুলিশ ও কোস্টগার্ড সদস্য ও সাংবাদিক।

    আরও পড়ুন