১৪ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩১শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

ওয়াশিংটনে চীনা দূতাবাসে বোমা হামলা ও হত্যার হুমকি

জনশক্তি ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের হিউস্টনে অবস্থিত চীনা কনস্যুলেট বন্ধের নির্দেশ দেওয়ার পর চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনইং অভিযোগ করেছেন, ওয়াশিংটনে অবস্থিত চীনা দূতাবাসে বোমা হামলা এবং হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে জানায়, এই হুমকির জন্য যুক্তরাষ্ট্র সরকারকে দায়ী করেছেন চুনইং।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে দেওয়া এক বিবৃতিতে চুনইং বলেন, যুক্তরাষ্ট্র সরকারের ছড়ানো ঘৃণা এবং বিদ্বেষের ফলে চীনা দূতাবাসে বোমা হামলা এবং হত্যার হুমকি এসেছে।

এর আগে, মেধাস্বত্ব চুরির অভিযোগ এনে আগামী শুক্রবারের মধ্যে টেক্সাসের হিউস্টনে চীনা কনস্যুলেট বন্ধের নির্দেশ দেয় মার্কিন প্রশাসন। কনস্যুলেট বন্ধ করে দেওয়ার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে পাল্টা প্রতিশোধমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে বেইজিং।

চীনের সরকারি সংবাদমাধ্যমগুলোতে নির্বাচনী স্বার্থ হাসিলে ডোনাল্ড ট্রাম্প চীনের বিরুদ্ধে এ ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে। একই সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ‘বেপরোয়া এবং বিপজ্জনক’ এই পদক্ষেপের জন্য মাশুল গুনতে হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে।

হিউস্টনের চীনা কনস্যুলেট ছাড়াও সানফ্রান্সিসকোতে অবস্থিত চীনা কনস্যুলেট নিয়েও জটিলতা তৈরি হয়েছে। মার্কিন কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থার (এফবিআই) অভিযোগ, ভিসা জালিয়াতি করে যুক্তরাষ্ট্রে আসা চীনা এক বিজ্ঞানী গ্রেপ্তার এড়াতে সানফ্রান্সিসকোতে চীনা কনস্যুলেটে আত্মগোপন করেছেন।

এফবিআইয়ের প্রসিকিউটররা ক্যালিফোর্নিয়া আদালতে দায়ের করা এক মামলায় বলেছেন, ওই বিজ্ঞানী চীনা সেনাবাহিনীর সদস্য হওয়া সত্ত্বেও ভিসার আবেদনপত্রে তা গোপন করেছেন। তারা দাবি করছেন, সেনাবাহিনীর বিজ্ঞানীদের ছদ্মবেশে যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানোর যে কর্মসূচি চীনের রয়েছে তার অংশ হিসাবে ওই বিজ্ঞানী এসেছেন।

জুয়ান ট্যাং নামে চীনা ওই নারী বিজ্ঞানী ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ায় জীববিজ্ঞানের গবেষক।

আরও পড়ুন