২৪শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
  • প্রচ্ছদ
  • করোনার মাঝেই চিকিৎসকসহ ১৪১ জন কর্মচারীকে চাকরিচ্যুত




  • করোনার মাঝেই চিকিৎসকসহ ১৪১ জন কর্মচারীকে চাকরিচ্যুত

    জনশক্তি, ময়মনসিংহ: রোগীদের সেবা দিতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে কেউ এখন আছেন আইসোলেশনে, আবার কেউবা আছেন হোম কোয়ারেন্টিনে। করোনাভাইরাস সংক্রমণের এই করুণ পরিস্থিতিতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (মমেকহা) বেসরকারি জনবলের চিকিৎসকসহ ১৪১ জন কর্মচারীকে চাকরিচ্যুতের নোটিশ দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

    সম্প্রতি হাসপাতাল পরিচালক এক চিঠিতে এই নোটিশ জারি করেছে। এর ফলে হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটের ইমারজেন্সি বায়োকেমিস্ট্রি ল্যাব, রেডিওলজী বিভাগ, প্যাথলজি, বর্হিবিভাগের চিকিৎসকসহ সনোলজিস্ট, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট, রেডিওগ্রাফার ও অফিস সহায়ক পদমর্যাদার এমন ১৪১ কর্মচারীর চাকরি থাকছে না আগামী ১ জুন থেকে।

    ময়মনসিংহ মেডিকেল কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্তে উদ্বিগ্ন কর্মচারীরাসহ তাদের পরিবার। এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চান হাসপাতালের বেসরকারি জনবলের ১৪১ কর্মচারী।

    এসব জনবল ছাটাইয়ের কারণে বহুল প্রত্যাশিত ও প্রশংসিত ওয়ানস্টপ সার্ভিসের সেবা দেওয়ার সক্ষমতা হারাবে। বন্ধ হয়ে যেতে পারে হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটের (সিসিইউ) বায়োক্যামিকেল ল্যাবের সেবা কার্যক্রম। ব্যাহত হবে অন্যান্য বিভাগের স্বাভাবিক সেবাদান কার্যক্রম। এতে রোগীরা চরম ভোগান্তির শিকার হবেন। দৌরাত্ম্য বাড়বে দালাল সংঘবদ্ধ চক্রের।

    দেশের অন্যতম এই হাসপাতালের মাত্রাতিরিক্ত রোগীর চিকিৎসা দিতে হাসপাতালের সরকারি কর্মচারীদের সহায়তা দিতেই ওয়ানস্টপস সার্ভিসসহ বিভিন্ন বিভাগে এসব কর্মচারীদের নিয়োগ দিয়েছিল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

    হাসপাতাল উপপরিচালক ডা. লক্ষীনারায়ণ মজুমদার জানান, করোনার কারণে রোগী কমে যাওয়ায় হাসপাতালের রক্ষণাবেক্ষণের ফান্ড থেকে এখন আর এসব কর্মচারীদের বেতন ভাতা মেটানো সম্ভব নয় বলেই এই সিদ্ধান্ত। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এবং রোগীর চাপ বাড়লে বিষয়টি বিবেচনা করা হবে। এসব কর্মচারীদের বেতন ভাতা মেটাতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে প্রতিমাসে প্রায় ১৫ লাখ টাকা ব্যয় করতে হয়।

    Print Friendly, PDF & Email

    আরও পড়ুন