২৮শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
অটোরিকশা চালকদের খাদ্যসামগ্রী দিয়ে প্রশংসিত ওসি সিঙ্গাইর পৌর এলাকায় ন্যায্য মুল্যে ওএমএস’র চাল ও আটা বিক্রি শুরু লকডাউনে সিঙ্গাইরে কারখানা খোলা রাখায় পঞ্চাশ হাজার টাকা জরিমানা বিধিনিষেধ লঙ্ঘনের দায়ে সিঙ্গাইরে ৫১ জনকে ৫৬৪০০ টাকা জরিমানা এবার ঈদে কোরবানি হয়েছে ৯৭ লাখ পশু, অবিক্রীত ২৮ লাখ ডিসির মহানুভবতা: দণ্ডের পরিবর্তে খাদ্যসামগ্রী পেল অটোরিকশা চালকরা লেবাননে বাংলাদেশী প্রবাসীদের ঈদ আনন্দ মেলা আনন্দঘন পরিবেশে আজকের তরুণ কণ্ঠ’ র বর্ষপূর্তি উদযাপন সিঙ্গাইরে চালককে জবাই করে অটোরিকশা ছিনতাই, গাড়িসহ তিনজন গ্রেফতার বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ সম্প্রীতির মানিকগঞ্জ ফেসবুক গ্রুপের

করোনা ও অপরাধ নির্মুলে সিঙ্গাইর থানা পুলিশের ব্যতিক্রমধর্মী প্রচারণা

মোবারক হোসেন:

মোবারক হোসেন:

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতা সৃষ্টি ও অপরাধ দমনে নিরালস ভাবে কাজ করছেন মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর থানা পুলিশ। এছাড়া পুলিশি সেবা মানুষের দৌড়গড়ায় পৌছে দিতে ভিন্ন রকম প্রচারণা চালাচ্ছেন দেশের প্রধান এই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থা। সভা, সেমিনার, উঠান বৈঠক, মসজিদ-মাদ্রাসা ও সামাজিক অনুষ্ঠানে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ, মাদক, জঙ্গিবাদ, যৌন হয়রানি, কিশোর গ্যাং, বাল্যবিবাহ নিয়ন্ত্রণ ও করনীয় নিয়ে কথা বলছেন থানার পুলিশ কর্মকর্তারা। এতে একদিকে যেমন করোনাভাইরাস সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধি পাচ্ছে অন্যদিকে কমছে উপজেলার অপরাধমুলক কর্মকাণ্ড।

ইতিমধ্যে অপরাধ দমন ও ভাল কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ চলতি বছরের জুন মাসের জেলার শ্রেষ্ঠ পুলিশ অফিসার নির্বাচিত হন থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) সফিকুল ইসলাম মোল্লা ও ওসি তদন্ত আবুল কালাম। এছাড়াও পুলিশের গোয়েন্দা সংস্থা (এসবি) সিঙ্গাইর জোনে কর্মরত এএসআই মো: আনোয়ার হোসেন জেলার শ্রেষ্ঠ ডিএসবি অফিসার মনোনীত হন। সম্প্রতি জেলা আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর মাসিক সমন্বয় সভায় এই তিন শ্রেষ্ঠ পুলিশ অফিসারকে সম্মননা প্রদান করা হয়।

 

জানা গেছে, সভা সেমিনার, সামাজিক অনুষ্ঠান ও প্রতি শুক্রবার উপজেলার বিভিন্ন মসজিদে জুমার খুৎবার আগে থানা পুলিশের পক্ষ থেকে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতা সৃষ্টি, অপরাধ দমন ও নির্মূলে সরকারের নির্দেশনার পাশাপাশি ধর্মীয় বিধিনিষেধ মেনে চলার আহ্বান জানানো হচ্ছে। এসব অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে দিকনির্দেশনা মুলক জ্ঞানগর্ব আলোচনা করছেন সহকারি পুলিশ সুপার (সিঙ্গাইর সার্কেল) রেজাউল হক, থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) মো: সফিকুল ইসলাম মোল্লা ও ওসি তদন্ত আবুল কালামসহ অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তারা।

শুক্রবার (১৬ জুলাই) থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) মো: সফিকুল ইসলাম মোল্লা উপজেলার সায়েস্তা ইউনিয়নের বালিয়াডাঙ্গী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে খুৎবার পুর্বে জনসচেতনতা মূলক গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্যদেন। এসময় মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, করোনার সংক্রমন ও করোনা ভাইরাসে মৃত্য গ্রাম-গঞ্জে ছড়িয়ে পড়ছে, তাই জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ ঘরের বাহিরে বের হবেন না, হাট-বাজারে চায়ের দোকানে আডডা-গল্প করবেন না। জরুরী প্রয়োজনে ঘর থেকে বের হলে অবশ্যই মাস্ক পড়বেন। ঘনঘন হাত দোয়া ও হ্যান্ড স্যানেটাইজার ব্যবহার করুন। হ্যান্ডশেক ও একে অপরের কাছাকাছি আসা হতে বিরত থাকুন। সামাজিক দূরুত্ব বজায় রাখুন ও ভীড় এড়িয়ে চলুন। সরকারি বিধি-নিষেধ না মেনে চললে গ্রেফতার ও জরিমানা সন্মুখীন হতে হবে। জ্বর, সর্দি ও কাশি হলে অবহেলা না করে নিকটস্থ হাসপাতালে করোনা টেস্ট করুন। সাধ্যমত পুষ্টিকর ফল-মূল, শাক, সবজি লেবু ভিটামিন সি জাতীয় খাবার খান। করোনা মহামারিতে অসহায়, দরিদ্র ও কর্মহীন লোকদের পাশে দাঁড়ান। সব সময় পরিস্কার পরিছন্ন থাকুন।

এ ছাড়াও থানায় মামলা বা জিডি, পুলিশ ক্লিয়ারেন্স, ভেরিফিকেশনসহ পুলিশের যে কোনো সেবা পেতে টাকা-পয়সা লাগে না, সে বিষয়েও ব্যাপক প্রচচারণা চালাচ্ছেন থানা পুলিশ। এতে করে দিনদিন পুলিশ সম্পর্কে জনসাধারণের নেতিবাচক ধারণা পাল্টে যাচ্ছে।

থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) মো: সফিকুল ইসলাম মোল্লা বলেন, সুখী সুন্দর দেশ গড়ার লক্ষ্যে ঘুষ-দুর্নীতি, হয়রানিমুক্ত পুলিশি সেবা নিশ্চিত করতে অঙ্গীকারবদ্ধ আমরা। পুলিশের সেবা মানুষের দৌড়গড়ায় পৌঁছে দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ যুগোপযোগী উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। যার ধারাবাহিকতায় ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমানের নির্দেশ ও নবাগত জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদের নেতৃত্বে চলমান করোনাভাইরাস প্রতিরোধে করনীয় ও বিধিনিষেধ সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টি, জঙ্গিবাদের কুফল, মাদকের ক্ষতিকর প্রভাব, নারী ও শিশু নির্যাতন, শিশু শ্রম, বাল্য বিবাহ ও ইভটিজিং বন্ধ এবং সামাজিক অবক্ষয় রোধে নিরালস ভাবে কাজ করছেন থানার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।

তিনি আরও বলেন, অপরাধ দমন ও নির্মূলে উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ পয়েণ্টে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। বাসা-বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের বিষয়ে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। সাইবার ক্রাইম ও গুজব সম্পর্কে জনসাধারণকে ধারণা দেওয়া হচ্ছে। যাতে করে সাধারণ মানুষ এসব অপরাধ থেকে রক্ষা পায়। তাছাড়া অপরাধ নির্মূল পুলিশকে সহায়তা করার জন্য জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯, বিট অফিসার, অফিসার ইনচার্জ, সার্কেল এএসপি, এডিশনাল এসপি এবং পুলিশ সুপারের মোবাইল নম্বর জনসাধারণেকে সরবরাহ করা হয়। মাদক ও অপরাধমুক্ত সমাজ গড়তে উপজেলার সব শ্রেনীপেশার মানুষের দোয়া ও সহযোগীতা কামনা করেন থানার এই পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) সফিকুল ইসলাম মোল্লা।

এ বিষয়ে সহকারি পুলিশ সুপার (সিঙ্গাইর) সার্কেল মো: রেজাউল হক বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ও অপরাধ নির্মূলে বর্তমান আমরা মসজিদ-মাদ্রাসাভিত্তিক প্রচারণার কাজ শুরু করেছি। পর্যায়ক্রমে মন্দির, গীর্জা, স্কুল, কলেজ, হাট-বাজার পর্যন্ত বিস্তৃত করবো। বর্তমান পৌরসভাসহ উপজেলার ১১ টি ইউনিয়নে ২০ টি বিট পুলিশ কার্যালয়ের অধীনে প্রতি শুক্রবার উপজেলার বিভিন্ন মসজিদে জুমার নামাজের খুৎবার পূর্বে বিশেষ বক্তব্য প্রদান করা হয়। বক্তব্যে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত ঢাকা রেঞ্জ পুলিশের ১১ দফা নির্দেশনা প্রচারণার পাশাপশি যে কোনো পুলিশি সেবা পেতে দালাল কিংবা অসাধু পুলিশ সদস্যদের সাথে কোন প্রকার অর্থনৈতিক লেনদেন না করার নির্দেশ প্রদান করা হয়।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে পদার্পন করেছে। দেশের এই উন্নয়ন ও সফলতাকে টেকসই করতে আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদের নেতৃত্বে কাজ করছেন বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী। মহান মুক্তিযুদ্ধসহ দেশের সংকটকালে বাংলাদেশ পুলিশ যেভাবে দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করেছেন, একইভাবে করোনা মহামারি ও ভবিষ্যতেও দেশবাসীর পাশে থাকবে পুলিশ।

আরও পড়ুন