২৩শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
সিঙ্গাইরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা সিঙ্গাইরে ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মিঠু গ্রেফতার সিঙ্গাইরে ১১ ইউপিতে ৪৬ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল পাবজি খেলা নিয়ে দ্বন্দ্ব, সিঙ্গাইরে বন্ধুর হাতে প্রাণ গেল কিশোরের স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র ছিনতাইয়ের অভিযোগে আ.লীগ প্রার্থীর ছেলে আটক সিঙ্গাইরে শিশু বলাৎকার মামলার প্রধান আসামী মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেফতার লেবাননে ফের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, প্রবাসীদের উপচেপড়া ভির লেবানন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত সিঙ্গাইরে দেয়ালে অঙ্কিত বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলনের আজ শুভ জন্মদিন

করোনা ভাইরাস নিয়ে যে পরামর্শ দিলেন ডা. দেবী শেঠী

ডা. দেবী শেঠী
ডা. দেবী শেঠী

বিশ্বব্যাপী মহাবিপর্যয় নামিয়ে এনেছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস। এরইমধ্যে বিশ্বের ১৭২টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে ভাইরাসটি। ইতোমধ্যে আক্রান্ত হয়েছে দুই লাখ ১৯ হাজার ৩৬৫ জন মানুষ। মৃত্যু হয়েছে ৮ হাজার ৯৭০ জনের।

করোনার অন্যতম একটি উপসর্গ হচ্ছে জ্বর। কিন্তু জ্বর হলেই করোনা ভাইরাসের পরীক্ষা না করার পরামর্শ দিয়েছেন ভারতের বিশিষ্ট হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. দেবী শেঠী।

তার মতে, অতিরিক্ত পরীক্ষা ভবিষ্যতে বিপদ বাড়াবে। কেননা চাহিদার তুলনায় করোনা পরীক্ষার কিট অপ্রতুল। যদি কারও ফ্লু বা সর্দি থাকে প্রথমে নিজেকে আইসোলেশন করে লক্ষণ ভালো করে পর্যবেক্ষণ করতে হবে। প্রথম দিন শুধু ক্লান্তি আসবে। তৃতীয় দিন হালকা জ্বর অনুভব হবে। সঙ্গে কাশি ও গলায় সমস্যা হবে। পঞ্চম দিন পর্যন্ত মাথায় যন্ত্রণা হবে। পেটের সমস্যাও হতে পারে। ষষ্ঠ বা সপ্তম দিনে শরীরে ব্যথা বাড়বে এবং মাথার যন্ত্রণা কমতে থাকবে। তবে পেটের সমস্যা থেকেই যাবে। অষ্টম ও নবম দিনে সব লক্ষণই চলে যাবে। তবে সর্দির প্রভাব বাড়তে থাকে। এর অর্থ আপনার প্রতিরোধক্ষমতা বেড়েছে ও আপনার করোনা আশঙ্কা নেই।

এ চিকিৎসক বলেছেন, এসব ক্ষেত্রে আপনার করোনা পরীক্ষার প্রয়োজন নেই। কারণ শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে গেছে। তবে যদি অষ্টম বা নবম দিনে আপনার শরীর আরও খারাপ হয় করোনা হেল্পলাইনে ফোন করে অবশ্যই পরীক্ষা করে নিতে হবে।

আরও পড়ুন