২৪শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
পৌর নির্বাচন ও দলীয় কাউন্সিলকে সামনে রেখে সিঙ্গাইর উপজেলা আ.লীগের বর্ধিত সভা গৃহকর্মীকে ধর্ষণের পর সাততলা থেকে ফেলে দেওয়া হয় ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ: মজনুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ঢাকা মহানগর উত্তর আ.লীগের অর্থ সম্পাদক হলেন শিল্পপতি সালাম চৌধুরী টিউশন ফি ছাড়া অন্য খাতে অর্থ নিতে পারবে না স্কুল-কলেজ লেবানন কেন্দ্রীয় আ’লীগের আহ্বায়ক কমিটি গঠন সত্যি হলো আসিফ নজরুলের ভবিষ্যত বানী, বাইডেন ৩০৬ ও ট্রাম্প ২৩২ সিঙ্গাইরে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার লক্ষে নারী উন্নয়ন সংস্থার সংবাদ সম্মেলন ফ্রান্সে মহানবীর (সা) ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন: প্রতিবাদে তারাকান্দায় মিছিল সমাবেশ বাসে আগুন, বিএনপির ৪৪৬ নেতাকর্মীর নামে ৯ মামলা,আটক ২০
  • প্রচ্ছদ
  • কাতার বিএনপির তিন নেতাকে বহিষ্কার




  • জনশক্তি, কাতার প্রতিনিধি:

    কাতার বিএনপির তিন নেতাকে বহিষ্কার

    দলীয় শৃঙ্খলা পরিপন্থী কর্মকান্ডে জড়িত থাকার সুস্পষ্ট অভিযোগের প্রেক্ষিতে কাতার বিএনপির কমিটির অভিযুক্ত তিন নেতাকে বিএনপির প্রাথমিক সদস্যপদসহ সব পর্যায়ের পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বিএনপির কেন্দ্রীয় সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত গত ১৫ নভেম্বর এক আলাদা আলাদা চিঠিতে এসব বহিষ্কারের আদেশ দেওয়া হয়।

    বহিষ্কৃত নেতারা হলেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি কাতার শাখার সহ সভাপতি লোকমান আহমদ, সহ সভাপতি এম নুরুজ্জামান এবং সহ ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মনছুর উল্লাহ রাশেদ।

    কাতার বিএনপির সভাপতি আবু ছায়েদ বলেছেন, আমরা দলের কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সুপারিশ করেছিলাম। তারা দীর্ঘদিন ধরে আমাদের নেতৃত্বের বিরুদ্ধে কটাক্ষ করে বক্তব্য দিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে। এখন এই বহিষ্কারের মাধ্যমে কাতার বিএনপির শৃঙ্খলা ফিরে আসবে বলে আমি আশা করি।

    বহিষ্কারের আদেশ প্রসঙ্গে বক্তব্য জানতে লোকমান আহমদের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখনো আমি আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু পাইনি। হাতে পাওয়ার পর সাংগঠনিকভাবে যা করণীয়, আমি সেই অনুসারে জবাব দেব।

    আরেক নেতা এম নুরুজ্জামান বলেন, যে ইস্যুতে আমাকে বহিষ্কৃত করা হয়েছে, তা আমি করিনি। আমি সভাপতি পদে বর্তমান সভাপতির বিরোধিতা করেছিলাম। পরে আমার আইডি হ্যাক করে দলীয় স্বার্থবিরোধী লেখা প্রকাশ করা হয়। আমাকে আত্মপক্ষ সমর্থন করার সুযোগ দেওয়া হয়নি।

    এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কাতার বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শরিফুল হক সাজু বলেন, দলীয় স্বার্থ ও শৃঙ্খলা বিরোধী কর্মকান্ডে জড়িত হয়েছিলেন এই তিন নেতা। ফলে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। দলের এ দুঃসময়ে দেশে-বিদেশে নেতাকর্মীদের ঐক্য আমাদের সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার। কিন্তু দলের স্বার্থবিরোধী কোনো কর্মকান্ডে জড়িত থাকলে তা দলীয় একতা ও শৃঙ্খলার জন্য ক্ষতিকর। তাই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয়ভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

    আরও পড়ুন