৩০শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
  • প্রচ্ছদ
  • কেক কেটে লেবাননে যুবদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন




  • কেক কেটে লেবাননে যুবদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

    জসিম উদ্দীন সরকার, লেবানন:

    বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল লেবানন শাখা কেন্দ্রীয় কমিটি।

    রবিবার বিকেলে রাজধানী বৈরুতের বারবিরের একটি ক্যাফেটেরিয়ায় এই সভা আয়োজন করা হয়। এসময় যুবদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কেক কাটা হয়।

    লেবানন যুবদল কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সৈয়দ আলমের সভাপতিত্বে ও সহ সাধারণ সম্পাদক মো. কাউছার মিয়া রাজনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির আসন গ্রহন করেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি লেবানন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নজরুল ইসলাম মজুমদার।

    বিশেষ অতিথি ছিলেন, লেবানন বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির প্রধান উপদেষ্টা আব্দুল হালিম, সাধারণ সম্পাদক মজিবুল হক মজিব, সহ সভাপতি আবুবক্কর ছিদ্দিক, আমিনুল ইসলাম আইমান, সিনিয়র যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, যুবদলের সিনিয়র সহ সভাপতি মফিজুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক ওমর ফারুক মোল্লা, লেবানন মহিলা দলের আহবায়ক কমিটির সদস্য সুলতানা নূর।

    অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ও লেবানন বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নজরুল ইসলাম মজুমদার বলেন, যুগে যুগে স্বৈরশাসক এসেছে, কিন্তু তাদের কারোই শেষ পরিনাম ভাল হয়নি। কাজেই যারা শহীদ জিয়ার ইতিহাস মুছে দিতে চায়, তাদের পরিনামও একদিন ইতিহাসের কলংক অধ্যায় হয়ে থাকবে।

    মজুমদার বলেন, প্রবাস থেকে রেমিটেন্স দেশের সর্ববৃহত একটি শক্তি, আর শহীদ জিয়াউর রহমানের বদৌলতেই এটা সম্ভব হয়েছিল। তিনিই প্রথম সৌদি আরবে কর্মসংস্থান তৈরি করে বাংলাদেশীদের প্রবাসে পাঠিয়েছিলেন। এরপর বাংলাদেশীদের জন্য বিভিন্ন দেশে দোয়ার খুলতে থাকে। আজ লক্ষ লক্ষ প্রবাসী বিভিন্ন দেশে সুনামের সাথে কাজ করছেন আর দেশে অর্থনীতির চাকা সচল রাখছেন। সেই মহান নেতার নাম মুছে ফেলার চেষ্টা করছে বর্তমান বিনাভোটের সরকার।

    তিনি আরো বলেন, দেশে শুধুমাত্র শহীদ জিয়ার নাম মুছে ফেলার চেষ্টা করা হচ্ছেনা, দেশমাতা বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার নামও মুছে ফেলার চেষ্টা হচ্ছে। বেগম খালেদা জিয়াকে মৃত্যুর মুখে ঢেলে দিয়েছে এই সরকার। তিনি বলেন, কোন অপশক্তিই বিএনপি ও জিয়া পরিবারের নাম মুছতে পারবেনা। বাংলার মানুষের হৃদয়ে যাদের স্থান, তাদের নাম মুছা যায়না।

    বক্তারা বলেন, দেশ থেকে যখন আন্দোলনের ডাক আসবে, সুদুর লেবানন থেকেও তারা একমত পোষণ করে আন্দোলনে অংশগ্রহন করবেন।

    অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন, লেবানন কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক আব্দুল মোতালেব সরকার, সহ প্রচার সম্পাদক রাব্বুল শেখ, লেবাবন যুবদলের যুব বিষয়ক সম্পাদক মো. আরিফুল ইসলাম, ক্রীড়া সম্পাদক বোরহান উদ্দীন সফিক, সহ সাধারণ সম্পাদক দেলুয়ার হোসেন, দপ্তর সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, সহ কোষাদক্ষ হাসেম আলী, সদস্য রাসেল আহমেদ, ইমরান মোল্লাসহ অনেকে।

    উক্ত সভায় লেবানন যুবলের সাধারণ সম্পাদক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন করায় আকবর আলীকে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব অর্পন করা হয় এবং লেবাননের নবগঠিত মহিলা দলের পুর্নাঙ্গ কমিটিকে অনুমোদন করা হয় এবং উক্ত কমিটির নেত্রীদয়দের পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়।

    সব শেষে যুবদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিশাল আকারের কেক কাটা হয়।

    অনুষ্ঠানে লেবানন বিএনপির সকল শাখা কমিটির নেতাকর্মী সহ বিএনপির অসংখ্য স্বমর্থকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

    আরও পড়ুন