২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
ইউপি নির্বাচন- ২০১৯

চরফ্যাশনের আহাম্মদপুরে আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী ফকরুল ইসলাম’র উঠান বৈঠকে গণজোয়ার

এম. মাহাবুবুর রহমান নাজমুল, জেলা প্রতিনিধি, ভোলা ।।

সারা দেশের মতো চরফ্যাশনেও দুটি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন শুরু হয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় ২১নং আহাম্মদপুর ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী আলহাজ্ব ফকরুল ইসলাম(নৌকা মার্কা)র সমর্থনে ৭নং ওয়ার্ডে উঠান বৈঠক হয়। গত ১৫ ডিসেম্বর মাগরিববাদ পশ্চিম আহাম্মদপুর বে-সরকারি কো-ইড বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অনুষ্ঠানে নির্বাচনের প্রধান সমন্বয়কারী জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে বক্তৃতা করেন, নৌকা মার্কার মনোনীত প্রার্থী আলহাজ্ব ফখরুল ইসলাম, চরফ্যাশন আলীয়া মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ মাওঃ নুরুজ্জামান, আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি সামছুল হক মাষ্টার, সাবেক চেয়ারম্যান মিছির ভূইয়ার নাতি খালেক ভূইয়া, আবদুল্লাহপুর ওয়ার্ড মেম্বার মোঃ রাসেল। ৭নং ওয়ার্ড মেম্বার প্রার্থী অলিউল্লাহ মিয়া (বল-মার্কা), নুরনবী বিল্লাহ (মোরগ মার্কা), ৭নং ওয়ার্ড সভাপতি আঃ রব। এসময় উঠান বৈঠকে ফখরুল ইসলাম তার বক্তৃতায় বলেন, গত নির্বাচনে একটি কুচক্রী মহলের ইন্ধনে আমার বিজয় ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছিল, কিন্তু জনগন আমাকে বিপুল ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছে। এবার আমি আবার আপনাদের দোয়া ও ভালোবাসা নিয়ে হাজির হয়েছি। এবার দল-মত নির্বিশেষে আপনাদের সমর্থন নিয়ে নৌকা মার্কায় বিজয়ী হয়ে আ’লীগের পতাকা উড়াব।
সভাপতি তার বক্তৃতায় বলেন, আহাম্মদপুর ও নুরাবাদ ইউনিয়ন দু’টি বিভক্ত হওয়ার কারণে বিগত চেয়ারম্যান আহাম্মদপুরে কোনো প্রকার উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড করেনি। তাই ইউনিয়নটিকে উন্নয়নের মাধ্যমে ঢেলে সাজাতে নৌকার বিকল্প নেই।

উপাধ্যক্ষ নুরুজ্জামান বলেন, গত নির্বাচনেও আমি নুরাবাদ চেয়ারম্যানের পক্ষে কাজ করেছি। তবে আহাম্মদপুর ইউনিয়ন ভাগ হওয়ার পর ঐ চেয়ারম্যান অত্র ইউনিয়নে কোন উন্নয়ন করেছে বলে আমার মনে হয় না। তাই ভোটারদেরকে নৌকা মার্কায় ভোট দিতে তিনি আহবান জানান।

এছাড়া গত ১৭ ডিসেম্বর ০৬নং ওয়ার্ডের মাওঃ মাহবুবুল হক মিয়ার বাড়ীতে মাগরিব বাদে উঠান বৈঠক জনসমাগমে রূপান্তরিত হয়। এসময় অত্র এলাকার সাধারণ ভোটার ও নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন