১লা নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
শয়তান যেভাবে মুসলিম ভ্রাতৃত্ব বিনষ্ট করে নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর: হাজী সেলিমের ছেলে এরফান গ্রেপ্তার সালাম নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য: ঢাবি অধ্যাপকের বিরুদ্ধে মামলা ঢাকা বিভাগের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হলেন সিঙ্গাইরের কৃতি সন্তান রেজাউল করিম তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদের সুস্থতা কামনায় রাজশাহীতে দোয়া মাহফিল সম্পত্তির লোভে মায়ের লাশ ৫ টুকরো করল ছেলে! কারাফটকে বিয়ে, তারপর মিলবে সাজাপ্রাপ্ত ধর্ষকের জামিন: হাইকোর্ট সিঙ্গাইরে যাত্রীবাহী বাস খাদে, চালকসহ তিনজন নিহত লেবাননে ফের সায়াদ হারিরি প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত ডিআইজি হাবিবুর রহমানের জায়গায় হলো বেদে সম্প্রদায়ের কবরস্থান
  • প্রচ্ছদ
  • জেল ও বড় অংকের জরিমানা ছাড়া দেশে ফেরার সুযোগ লেবানন প্রবাসীদের




  • জেল ও বড় অংকের জরিমানা ছাড়া দেশে ফেরার সুযোগ লেবানন প্রবাসীদের

    জসিম উদ্দীন সরকার, লেবানন: কোন জেল জরিমানা ছাড়া, শুধুমাত্র এক বছরের জরিমানা ও বিমান টিকে দিয়ে দেশে ফেরার সুযোগ পাচ্ছেন লেবাননে বসবাসরত কাগজপত্র বিহীন অবৈধ প্রবাসী বাংলাদেশীরা। আগামী ১৫,১৬,১৭ সেপ্টেম্বর রবি, সোম ও মঙ্গলবার লেবাননের বাংলাদেশ দুতাবাসে অবৈধ প্রবাসীদের আবেদন গ্রহন করা হবে। পুরুষদের জন্য ২৬৭ মার্কিন ডলার ও মহিলাদের জন্য ২০০ মার্কিন ডলার জরিমানা ও বিমান টিকেট সহ আবেদন ফরম জমা দিতে হবে।

    ৬ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় দুতাবাসে সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন লেবাননে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার।

    রাষ্ট্রদুত আব্দুল মোতালেব সরকার বলেন, এই কর্মসূচী চালু থাকবে আগামী ৩১শে ডিসেম্বর পর্যন্ত। ৩টি স্তরে প্রবাসীরা তাদের আবেদন করতে পারবেন। সেপ্টেম্বরে যারা আবেদন করতে পারবে না, আগামী নভেম্বর ও ডিসেম্বরে তারা ফের আবেদন করতে পারবেন।

    রাষ্ট্রদূত জানান, আগামী নভেম্বর ডিসেম্বরে যেহেতু অবৈধ বাংলাদেশী প্রবাসীদের বৈধ হবার একটি সুযোগের সম্ভাবনা রয়েছে, সে দিক চিন্তা করেই এই ৩ স্তরে আবেদন জমা নেয়া হবে। যাতে বৈধ হওয়ার সুযোগে যারা বৈধ হতে না পারবেন, তারাও যেন দেশে ফেরার সুযোগটি গ্রহন করতে পারেন।

    তিনি বলেন, লেবাননে উচ্চ পর্যায়ে দীর্ঘ দিন আলোচনার মাধ্যে দুতাবাস এই সুযোগ পেতে সক্ষম হয়েছে। যার ফলে প্রবাসীরা কোন রকম জেল ও বড় অংকের জরিমানা ছাড়াই দেশে ফেরতের সুযোগ পাচ্ছেন। তবে যাদের নামে চুরি, মাদক ও ফৌজদারী মামলা বা লেবাননের কোর্টে গ্রেপ্তরী পরোয়ানা রয়েছে তারা এই কর্মসূচীর আওতায় পরবে না। তবে যাদের বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ রয়েছে তারা যদি দেশে ফেরত যেতে দূতাবাসের সাহায্য কামনা করেন, হাতে নেয়া কর্মসূচী শেষ হলে দূতাবাসের পক্ষ থেকে তাদের অবশ্যই সহযোগীতা দেয়া হবে।

    তিনি আরো বলেন, লেবাননের আইন আনুযায়ী দূতাবাসের মাধ্যমে জেনারেল সিকিউরিটি থেকে ক্লিয়ারেন্স গ্রহন করতে হয়। তাই যারা দেশে যাবার জন্য আবেদন করবেন, ক্লিয়ারেন্স পাবার পর তাদের অবশ্যই দেশে ফেরত যেতে হবে। অন্যথায় লেবাননের জেনারেল সিকিউরিটি তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করবে। সে ক্ষেত্রে দূতাবাসের করনীয় কিছু থাকবেনা বলেও তিনি যোগ করেন।

    সংবাদ সম্মেলনে দেশের ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিক বৃন্দ এবং কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন, এসময় তাদের বিভিন্ন প্রশ্নেরও জবাব দেন রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার।

    Print Friendly, PDF & Email

    আরও পড়ুন