১লা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
  • প্রচ্ছদ
  • ডিআইজি হাবিবুর রহমানের জায়গায় হলো বেদে সম্প্রদায়ের কবরস্থান




  • ডিআইজি হাবিবুর রহমানের জায়গায় হলো বেদে সম্প্রদায়ের কবরস্থান

    মোবারক হোসেন:

    বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর আইকন ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি (উপ মহাপরিদর্শক) হাবিবুর রহমান। পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি সমাজের অনগ্রসর বেদে ও হিজড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন করে পুলিশ সম্পর্কে সাধারণ মানুষের নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিকে পাল্টে দিয়ে নিজ বাহিনীর ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছেন তিনি। এবার মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলার ঝিটকা বাসুদেবপুর এলাকার বেদে সম্প্রদায়ের কবরস্থানের জন্য জমি দান করে মানবতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন পুলিশের এই উপ মহাপরিদর্শক।

    হরিরামপুর উপজেলার ঝিটকা বাসুদেবপুর এলাকায় ১৮৩টি বেদে পরিবারের বসবাস। বহু বছর আগে তারা যাযাবর জীবন ও বেদে-পেশা ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনযাপন করছেন। মাছ শিকার ও গ্রামীণ মেলা খেলায় রকমারি জিনিসপত্র বিক্রি করা এখন তাদের পেশা। মুসলমান হলেও মৃত্যুর পর সামাজিক কবরস্থানে তাদের ঠাঁই হতো না। নেই তাদের পারিবারিক কবরস্থানও। উপায়ন্তর না পেয়ে মৃতদের নিজ নিজ বাড়িতেই দাফন করা হতো। বিষয়টি ডিআইজি হাবিবুর রহমানকে অবগত করেন মানিকগঞ্জ পৌর এলাকার বাসিন্দা অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) গাজীপুরের জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) এনায়েত করিম। এরপর ডিআইজি হাবিবুর রহমান ও এএসপি এনায়েত করিম যৌথভাবে ১৩ শতক জমি কেনেন। জমিটি বেদে সম্প্রদায়ের কবরস্থানের জন্য দান করা হয়। বুধবার দুপুরে কবরস্থানটি আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করেন ডিআইজি হাবিবুর রহমান।

    এসময় মানিকগঞ্জের পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) হাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেডকোয়ার্টার) হোসাইন মোহাম্মদ রায়হান, গাজীপুর জেলার জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) এনায়েত করিম, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি গোলজার হোসেন ও গালা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিক বিশ্বাসসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

    বেদে পল্লীর বাসিন্দা ৮৫ বছর বয়সী কমলা বিবি বলেন, ৫২ বছর ধইরা কবর দেওয়ার জায়গা পাই নাই। সমাজের কবরস্থানে আমাগো জায়গা অয় নাই। কেউ মরলে বাড়িতেই কবর দেওন লাগতো। এতদিন পর ডিআইজি হাবিবুর রহমান স্যার আমাগো কবরের জায়গা করে দিছে। এহন মইরাও শান্তি পামু।

    আরও পড়ুন