১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |
  • প্রচ্ছদ
  • নড়াইলে ২০ দলীয় জোটের নির্বাচনী কার্যালয়ে ভাঙচুর
  • নড়াইলে ২০ দলীয় জোটের নির্বাচনী কার্যালয়ে ভাঙচুর

    জনশক্তি রিপোর্ট: নড়াইল-২ আসনে ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী এনপিপির কেন্দ্রীয় কমিটির চেয়ারম্যান এ জেড এম ফরিদুজ্জামানের প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে (ধানের শীষ) ব্যাপক ভাঙচুর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

    মঙ্গলবার বিকাল ৩টার দিকে লোহাগড়া বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ আসনে ফরিদুজ্জামানের প্রতিদ্বন্দ্বী হলেন, আওয়ামী লীগ প্রার্থী মাশরাফি বিন মুর্তজা। এ হামলায় অন্তত চার নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলে দাবি করেন ফরিদুজ্জামান। তিনি বলেন, লোহাগড়া উপজেলা ছাত্রলীগের নেতৃত্বে আমার নির্বাচনী অফিসে হামলা চালানো হয়। অতর্কিতভাবে হামলা চালিয়ে অফিসের চেয়ার, টেবিল, ফ্যানসহ অন্যান্য আসবাবপত্রের ব্যাপক ক্ষতি করা হয়েছে। এদিন বিকালেই এখানে কর্মিসভা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে।

    এ ঘটনায় ফরিদুজ্জামান এদিন বিকালে তার লোহাগড়ার বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সহসভাপতি আকরামুজ্জামান মিলু, লোহাগড়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি নজরল জমাদ্দার, নেওয়াজ আহমেদ ঠাকুর নজরুল, মোহাম্মদ হোসেন মহত, কাজী সুলতানুজ্জমান সেলিম, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম ফেরদৌস রহমান, সহপ্রচার সম্পাদক সৈয়দ আব্দুস সবুর, লোহাগড়া উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সালেহা বেগম, লোহাগড়া পৌর কাউন্সিলর মিলু শরীফ, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক টিপু সুলতান, লোহাগড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শাহিন বিপ্লব, লোহাগড়া পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাহিদুর রহমান রিকাত, লোহাগড়া আদর্শ কলেজের সাবেক ভিপি শফিকুল ইসলাম সবুজ, লোহাগড়া উপজেলা যুবদলের সভাপতি মাহমুদুল হাসান, সাধারণ সম্পাদক আহাদুজ্জামান, এনপিপির কেন্দ্রীয় নেতা শরীফ মুনীর হোসেন, বদরুল ইসলাম, বেলাল হোসেন প্রমুখ।

    এদিকে, ছাত্রলীগ তাদের বিরুদ্ধে আনা এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

    আরও পড়ুন

    [X]