২৫শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থানে সিঙ্গাইর উপজেলা প্রশাসন দায়িত্ব গ্রহণ করলেন মানিকগঞ্জ নবাগত জেলা প্রশাসক আব্দুল লতিফ করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ‘ডেল্টা প্লাস’নিয়ে কেন এত শঙ্কা গোটা বিশ্বের? রাশিয়াকে উড়িয়ে নকআউট পর্ব নিশ্চিত করলো ডেনমার্ক সিঙ্গাইরে শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা আত্মসাৎ, নগদ এজেন্ট মালিককে অর্থদণ্ড প্রথম দিনে নাম নিবন্ধন করেছে ১৯৪জন পাসপোর্ট নাম্বার বিহীন লেবানন প্রবাসী সিঙ্গাইরে ট্রাকচাঁপায় মটরসাইকেল চালকের মৃত্যু একদিন নয়, প্রতিদিন হোক বাবা দিবস ব্র্যাকের মানবিধকার ও আইন সচেতনতা বিষয়ক মতনিময় সভা পরীমনির বাসা যেন মদের বার, প্রতিদিনই বসে আসর

পাঁচ শর্তে বাড়িতে থাকবেন মাদক মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি

জনশক্তি ডেস্ক:

সাতক্ষীরায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের একটি মামলায় এক বছর সাজাপ্রাপ্ত আসামি হাসান আলী সরদারকে (২৫) কারাগারে না পাঠিয়ে বাড়িতে প্রবেশনে পাঠিয়ে সংশোধনের সুযোগ দিয়েছেন আদালত। তবে এই সময় তাঁকে পাঁচটি শর্ত মেনে চলার আদেশ দিয়েছেন আদালত। এ আদেশ অমান্য করলে তাঁকে আবার কারাগারে যেতে হবে। সাতক্ষীরা জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দ্বিতীয় আদালতের বিচারক ইয়াসমিন নাহার গত মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) বিকেলে এ রায় দেন।

প্রবেশনে যাওয়া সাজাপ্রাপ্ত আসামির নাম হাসান আলী সরদার। তিনি সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ভাদড়া গ্রামের রজব আলী সরদারের ছেলে। এ মামলার আসামিপক্ষের আইনজীবী ছিলেন এ টি এম ফখরুল আলম এবং রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন শামছুল বারী।

আসামিপক্ষের আইনজীবী এ টি এম ফখরুল আলম জানান, গতকাল জি আর ৪৩/১৫ (টিআর ২৯/১৬) নম্বর মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলার রায়ে ৩ কেজি গাঁজা রাখার অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় আসামি হাসান আলী সরদারকে এক বছরের প্রবেশন দেওয়া হয়েছে। তবে এই সময় আসামিকে পাঁচটি শর্তে বাড়িতে প্রবেশনে থাকার সুযোগ দিয়েছেন আদালত। শর্তগুলো হচ্ছে আসামি মাদক বা নেশাজাতীয় দ্রব্য সেবন করবেন না, কোনো খারাপ সঙ্গীর সঙ্গে মিশবেন না, প্রবেশনকালীন ১০টি গাছ রোপণ করবেন, পিতামাতার সেবা করবেন এবং সপ্তাহে কমপক্ষে এক দিন মাদকের বিরুদ্ধে প্রচারণা চালাবেন। প্রচারণার সময় কী কী করতে হবে, তা–ও রায়ে উল্লেখ করা হয়েছে। এসব শর্ত ভঙ্গ করলে তাঁকে আবার কারাগারে যেতে হবে বলে রায়ে উল্লেখ করা হয়েছে।

সাজাপ্রাপ্ত আসামি শর্তগুলো মানছেন কি না, তা তদারকির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সাতক্ষীরা সমাজসেবা অধিদপ্তরের প্রবেশন কর্মকর্তা সুমনা সারমিনকে। এ মামলার রায়ে বিচারক তিন মাস পরপর সমাজসেবার প্রবেশন কর্মকর্তাকে আদালতে এ বিষয়ে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার আদেশও দিয়েছেন।

আরও পড়ুন