৭ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
সিংগাইরে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প সিঙ্গাইরে যুবকের মরদেহ উদ্ধার, পরিবারের দাবি হত্যা সিঙ্গাইরে মাছচাষে সক্ষমতা বৃদ্ধি বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা সিঙ্গাইরে মেম্বারকে চাপা দেয়া সেই অচেনা ট্রাকের হদিস মেলেনি বাংলাদেশ প্রেসক্লাব অব মালয়েশিয়ার মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত নবীন আইনজীবীদের বরণ করে নিল মানিকগঞ্জ আইনজীবী সমিতি নান্নুকে নৌকা দেওয়ায় হতাশ হামছাদী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ মালয়েশিয়ায় বিএনপি কর্তৃক বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা ও বিদেশে চিকিৎসা পাঠানোর জন্য দোয়া মাহফিল সিঙ্গাইরে আত্রাইল বিল পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির প্রশিক্ষণ কর্মশালা গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশীপ অ্যাওয়ার্ড পেলেন বাংলাদেশী নারী ওলোরা

বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াশ’, বাড়ল সতর্ক সংকেত

জনশক্তি রিপোর্ট:

পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর এবং এর কাছাকাছি এলাকায় অবস্থানরত গভীর নিম্নচাপটি ঘনীভূত হয়ে একই এলাকায় ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াশ’-এ পরিণত হয়েছে। এ ছাড়া সমুদ্র বন্দরগুলোকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের এক বিজ্ঞপ্তিতে আজ সোমবার এ তথ্য জানানো হয়েছে।

https://www.john-kirk.co.uk/?p=b3bx7uf বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, ঘূর্ণিঝড়টি আজ সোমবার সকাল ৬টার দিকে চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৬৭৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৬০৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৬৫০ কিলোমিটার দক্ষিণে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৬০৫ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থান করছিল। এটি আরও ঘনীভূত হয়ে উত্তর-উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে।

https://www.eventsandlogistics.net/67uf2wp বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, ঘূর্ণিঝড়টির কেন্দ্রের ৫৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়ার আকারে ৮৮ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড়টির কেন্দ্রের কাছে সাগর বিক্ষুব্ধ রয়েছে।

https://www.lamechaml.org/bk1z8cur9d বিজ্ঞপ্তিতে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরগুলোকে ১ নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত নামিয়ে তার পরিবর্তে ২ নম্বর নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

এ ছাড়া উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে তাদের গভীর সাগরে বিচরণ করতে নিষেধ করা হয়েছে।

এদিকে ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তর রোববার রাতে বুলেটিনে জানিয়েছিল, আজ সোমবার সকালের মধ্যে গভীর নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে যাচ্ছে। তারপর আগামী বুধবার সন্ধ্যায় ‘ইয়াশ’ অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড় (ঘণ্টায় ঝড়ের গতিবেগ ১১৮ থেকে ১৬৬ কিলোমিটার) হিসেবে ওড়িশার পারাদ্বীপ এবং পশ্চিমবঙ্গের সাগরের মাঝখান দিয়ে স্থলভাগে প্রবেশ করবে।

গতকাল ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়, শেষ ৬ ঘণ্টায় আরও পশ্চিম এবং উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়েছে ‘ইয়াশ’। এটি পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে। সেখান থেকে আরও শক্তিশালী হয়ে পশ্চিম এবং উত্তর-পশ্চিমে অগ্রসর হবে ঘূর্ণিঝড়টি। তারপর অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড় হিসেবে বুধবার সন্ধ্যায় ওড়িশার পারাদ্বীপ এবং পশ্চিমবঙ্গের সাগরের মাঝখান দিয়ে স্থলভাগে আছড়ে পড়বে।

কত বেগে বইবে ঝড়?

ভারতের আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, আজ সন্ধ্যার পর থেকে ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে। দমকা হাওয়ার বেগ পৌঁছাতে পারে ঘণ্টায় ৬০ কিলোমিটারে। আগামীকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঘণ্টায় ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বইতে পারে ঝড়। কখনও কখনও তা ঘণ্টায় ৭০ কিলোমিটার ছুঁয়ে ফেলতে পারে। আগামী বুধবার সকালে ঝড়ের বেগ আরও বেড়ে ৬০ থেকে ৭০ কিলোমিটার হতে পারে। দমকা হাওয়ার বেগ পৌঁছে যেতে পারে ঘণ্টায় ৮০ কিলোমিটারে। তারপর ৯০ থেকে ১০০ কিলোমিটার বেগে বইতে পারে ঝড়, যা সন্ধ্যা পর্যন্ত বাড়তে থাকবে। কখনও কখনও তা ঘণ্টায় ১১০ কিলোমিটার ছুঁয়ে ফেলতে পারে।

আরও পড়ুন