২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
সিঙ্গাইরে শিশু বলাৎকার মামলার প্রধান আসামী মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেফতার লেবাননে ফের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, প্রবাসীদের উপচেপড়া ভির লেবানন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত সিঙ্গাইরে দেয়ালে অঙ্কিত বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলনের আজ শুভ জন্মদিন বিএনপির ৪৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে মালয়েশিয়ায় ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত যে কারণে হত্যার শিকার শিশু আল-আমীন, রহস্য উদঘাটন সিঙ্গাইর থানার ওসির পিতার মাগফিরাত কামনায় দোয়ার মাহফিল কানাডা প্রবাসী প্রয়াত জয়নুল আবেদীন স্বরণে দোয়ার মাহফিল তিনদিন পর সিঙ্গাইরে নিখোঁজ শিশুর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার
অনলাইন ডেস্ক:

বাবরি মসজিদ রায়ে সাম্য ও ন্যায়বিচার হয়নি : মুসলিম ল’ বোর্ড

ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট অযোধ্যার বাবরি মসজিদের জায়গায় রাম মন্দির নির্মাণের পক্ষে রায় দেয়ার পর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে দেশটির মুসলিম কমিউনিটি নেতারা। অল ইন্ডিয়া মুসলিম পারসোনাল ল’ বোর্ডের (মুসলিম আইন বোর্ড) পক্ষ থেকে রায়ের পর বলা হয়েছে, ‘এই রায়ে সাম্য ও ন্যায় বিচার হয়নি’। তারা এই রায়ের রিভিও আবেদন করার কথাও ঘোষণা করেছেন।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস লিখেছে, রায়ের পর ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের চত্বরে সাংবাদিকদের ব্রিফিং কালে সংস্থাটির সেক্রেটারি জাফারিয়াব জিলানি বলেন, রায়ে সংবিধান ও ধর্মনিরপেক্ষতা নিয়ে অনেক কথা বলা হয়েছে। (তথাপি) রায়ে আমরা সন্তুষ্ট হতে পারিনি, কারণ ১৪২ ধারা আপনাকে এটি করার অনুমতি দেয় না।

জাফারিয়াব জিলানি এই মামলায় সুন্নী ওয়াকফ বোর্ডের আইনজীবী ছিলেন।

রায়ের বেশ কিছু অংশের বিষয়ে আপত্তি জানিয়ে জিলানি বলেন, ভেতরের যে মাঠে নামাজ পড়া হত সেটিকেও দিয়ে দেয়া হয়েছে অন্য পক্ষকে। এখানে সাম্য ও ন্যায় বিচারের কিছুই দেখা যাচ্ছে না।

আদালত মসজিদ নির্মাণের জন্য আলাদা জমি দিতে নির্দেশ দিয়েছে। সে বিষয়ে তিনি বলেন, মসজিদের জন্য জমি বিনিময় করা যায় না। এখানে বিরোধটা মসজিদ নিয়েই, জমি নিয়ে নয়। তিনি আশঙ্কা করেন, এই রায় ভবিষ্যতে সঙ্কট সৃষ্টি করতে পারে।

তিনি বলেন, শরিয়াহ আইন অনুযায়ী আমরা কোন মসজিদের দাবি ছেড়ে দিতে পারি না; কিন্তু আদালত আমাদের সেটিতে বাধ্য করছে। ১২ শতক থেকে ১৫২৮ সাল পর্যন্ত এই জমিতে কী হয়েছে তার কোন প্রমাণ নেই। হিন্দুরা বলছে, বিক্রমাদিত্য যুগে এখানে মন্দির ছিল। যার কোন প্রমাণ নেই।

আরও পড়ুন