২৬শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
মিথ্যা মামলায় পুলিশ সদস্যকে হয়রানির অভিযোগ রাস্তার মুখে উঁচু দেয়াল, অবরুদ্ধ একটি মুসলিম পরিবার সিঙ্গাইরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা সিঙ্গাইরে ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মিঠু গ্রেফতার সিঙ্গাইরে ১১ ইউপিতে ৪৬ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল পাবজি খেলা নিয়ে দ্বন্দ্ব, সিঙ্গাইরে বন্ধুর হাতে প্রাণ গেল কিশোরের স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র ছিনতাইয়ের অভিযোগে আ.লীগ প্রার্থীর ছেলে আটক সিঙ্গাইরে শিশু বলাৎকার মামলার প্রধান আসামী মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেফতার লেবাননে ফের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, প্রবাসীদের উপচেপড়া ভির লেবানন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

বিনামুল্যে সাইকেল পেল সিঙ্গাইরের ৭৪ জন অসহায় দরিদ্র শিক্ষার্থী

মোবারক হোসেন:

মোবারক হোসেন, সিঙ্গাইর (মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি:
মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর উপজেলার ৮ টি মাধ্যমিক উচ্চবিদ্যালয়ের ৭৪ জন দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীকে বিনামুল্যে বাইসাইকেল দেওয়া হয়েছে। শনিবার (১৪ আগষ্ট) বিকালে স্থানীয় সরকার বিভাগের অধীন লোকাল গভর্ন্যান্স সাপোর্ট প্রজেক্ট-৩ এর অর্থায়নে সাইকেলগুলো এসব শিক্ষার্থীদের হাতে তুলেদেন জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ। এদের মধ্যে ৪৪ জন মেয়ে ও ৩০ জন ছেলে শিক্ষার্থী রয়েছে।

এ উপলক্ষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) রুনা লায়লার সভাপতিত্বে উপজেলার বাইমাইল কবি নজরুল উচ্চ বিদ্যালয়, বলধারা ও জয়মন্টপ ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে পৃথক ভাবে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বায়রা উচ্চবিদ্যালয়, বাইমাইল কবি নজরুল উচ্চবিদ্যালয়, পারিল নুর মহসিন উচ্চবিদ্যালয়, নবগ্রাম উচ্চবিদ্যালয়, গোলাইডাঙ্গা উচ্চবিদ্যালয়, কালিয়াকৈর উচ্চবিদ্যালয়, জয়মন্টপ উচ্চবিদ্যালয় ও রায়দক্ষিন উচ্চবিদ্যালয়ের বিভিন্ন শ্রেণীর ৭৪ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে বাইসাইকেল বিতরণ করা হয়। এসব অসহায় দরিদ্র শিক্ষার্থীদের হাতে সাইকেল তুলেদেন প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ।

এ সময় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের উপপরিচালক মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, উপজেলা চেয়ারম্যান মুশফিকুর রহমান খান হান্নান, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মাজেদ খান, দেওয়ান জিন্নাহ লাটু ও ইঞ্জিয়ার মোঃ শাহাদাৎ হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

জয়মন্টপ উচ্চবিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী সোনিয়া আক্তার ও রায়দক্ষিন উচ্চবিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রণীর ছাত্রী সাদিয়াসহ অনেক শিক্ষার্থী বলেন, বাড়ি থেকে আমাদের স্কুল অনেক দূরে। প্রতিদিন রিকশা-ভ্যানে যেতে টাকা ও সময় দুটোই লাগে। আবার কখনো বাবা-মা টাকাও দিতে পারেন না। তখন পায়ে হেটে কষ্ট করে স্কুলে যেতে হয়। এখন সাইকেলে করে স্কুলে যাব। স্কুলে যেতে আর কষ্ট করতে হবে না।

আরও পড়ুন