৩০শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
শয়তান যেভাবে মুসলিম ভ্রাতৃত্ব বিনষ্ট করে নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর: হাজী সেলিমের ছেলে এরফান গ্রেপ্তার সালাম নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য: ঢাবি অধ্যাপকের বিরুদ্ধে মামলা ঢাকা বিভাগের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হলেন সিঙ্গাইরের কৃতি সন্তান রেজাউল করিম তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদের সুস্থতা কামনায় রাজশাহীতে দোয়া মাহফিল সম্পত্তির লোভে মায়ের লাশ ৫ টুকরো করল ছেলে! কারাফটকে বিয়ে, তারপর মিলবে সাজাপ্রাপ্ত ধর্ষকের জামিন: হাইকোর্ট সিঙ্গাইরে যাত্রীবাহী বাস খাদে, চালকসহ তিনজন নিহত লেবাননে ফের সায়াদ হারিরি প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত ডিআইজি হাবিবুর রহমানের জায়গায় হলো বেদে সম্প্রদায়ের কবরস্থান
  • প্রচ্ছদ
  • মমতাজ নামের মহিলা যুবলীগ নেত্রী আটক




  • মমতাজ নামের মহিলা যুবলীগ নেত্রী আটক

    নিজস্ব প্রতিবেদক: নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার নজিপুর পৌর শহরে সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজির সময় মমতাজ বেগম সাথী নামে এক মহিলা যুবলীগ নেত্রীকে আটক করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার হাতে নাতে আটকের পর পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে এলাকার জনগণ।

    জানা যায়, কথিত নারী সাংবাদিক মমতাজ বেগম সাথী “Channel 69 Tv” এর নওগাঁ জেলা সংবাদদাতা হিসেবে পরিচয় দিয়ে জেলার বিভিন্ন বেকারি, মিষ্টান্ন দোকান ও ফ্যাক্টরিতে গিয়ে ক্যামেরাম্যান জাকারিয়া হোসেন (৩০) সহায়তায় অনিয়মের খবর প্রচারের হুমকি দিয়ে চাঁদাবাজি করে আসছেন।

    বৃহস্পতিবার জেলার পত্নীতলা উপজেলার নজিপুরে মিষ্টান্ন দোকানে গিয়ে চাঁদাবাজি করার সময় তাদের ধরে পুলিশের নিকট উত্তেজিত জনতা তুলে দেয়।

    জানা যায়, মমতাজ বেগম সাথী রাণীনগর উপজেলা মহিলা যুবলীগের সভাপতি ও উপজেলার দাউদপুর গ্রামের আশিকুজ্জামান (বিপ্লব) এর স্ত্রী এবং রাণীনগর উপজেলার কাশিমপুর গ্রামের মোহাম্মদ আলীর মেয়ে।

    পুলিশ জানায়, মমতাজ বেগমের স্বামী প্রায় দুই বৎসর যাবত অস্ত্র ও মাদক মামলায় কারাগারে রয়েছেন। মমতাজের বিরুদ্ধেও একাধিক মানুষকে ব্লাক মেইল করে মোটা অর্থ আদায়ের অভিযোগে কোর্টে মামলা বিচারাধীন রয়েছে।

    পত্নীতলা থানার ওসি পরিমল কুমার চক্রবর্তী জানান, সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে জনতা কর্তৃক মমতাজ বেগম ও জাকারিয়া কে পুলিশের হাতে তুলে দেয় স্থানীয়রা।

    বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬ টার দিকে থানা হেফাজতে রাখা হয়। পরে ভুক্তভোগিরা আনীত চাঁদাবাজির অভিযোগের মামলা না করায়-মুচলেখা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

    এস রহমান সোহেল/জনশক্তি

    Print Friendly, PDF & Email

    আরও পড়ুন