২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

মানিকগঞ্জ বার নির্বাচন: এবারও আলোচনায় সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী লুৎফর

জনশক্তি রিপোর্ট:

আগামী কাল বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) মানিকগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনকে ঘিরে নবীন-প্রবীন আইনজীবীদের মধ্যে উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। কারা আসছেন নেতৃত্বে,এ নিয়ে আদালত পাড়াসহ সর্বমহলে বইছে আলেচনার ঝড়। এবারের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবি সমন্বয় পরিষদ মনোনীত বাবলু-খোরশেদ-লুৎফর-জাহিদ পরিষদ ও বিএনপি জামায়াত জোট সমর্থিত মেজবাহ-মহিউদ্দিন-লিটন-সহিদ পরিষদের ব্যানারে ৩০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্তিতা করছেন। প্রার্থীরা বিজয় নিশ্চিত করতে ভোটারদের মনজয় করার চেষ্টা করছেন। এদের মধ্যে সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় শীর্ষে রয়েছেন সম্মিলিত আইনজী্বি সমন্বয় পরিষদ মনোনীত বর্তমান সাধারণ সম্পাদক প্রবীন আইনজীবী লুৎফর রহমান। বিজ্ঞ মহলের ধারণা, সাধারণ সম্পাদক পদে এবারও শেষ পর্যন্ত লুৎফর রহমানই বিপুল ভোটে বিজয়ী হবেন।

অ্যাডভোকেট লুৎফর রহমান জেলার সিঙ্গাইর উপজেলার কাংশা গ্রামের প্রয়াত ইস্রাফিল মুন্সি ও হাজেরা খাতুনের ছেলে। ছাত্র জীবনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রাণীত হয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত হন তিনি। লুৎফর রহমান সিঙ্গাইর সরকারি ডিগ্রি কলেজ ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক (জিএস) ছিলেন। পরবর্তীতে সিঙ্গাইর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও শ্রম বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। দীর্ঘদিন কাজ করেন ব্র্যাক ও গ্রামীণ ব্যাংকের লিগ্যাল এডভাইজার হিসেবে। তিনি মানিকগঞ্জ জজ কোর্টের এসিসটেন্ট পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি), জেলা আওয়ামী আইনজীবি পরিষদের সহ-সভাপতি ও জেলা রেড ক্রিসেন্টের আজীবন সদস্য।

এছাড়া তিনি স্থানীয় বহু শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের দাতা সদস্য। পেশাগত ও রাজনৈতিক জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে তিনি সফলতার স্বাক্ষর রেখেছেন। শুধু তাই নয়, সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে দান অনুদান করেন মসজিদ, মাদ্রাসা, স্কুল-কলেজ ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানে।

গত মানিকগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদ নির্বাচনে প্রথমবারের মতো অংশগ্রহণ করে বিজয়ী হন। বিজয়ী হয়ে আইনজীবীদের কল্যাণ ও স্বার্থ রক্ষার্থে নিরালসভাবে কাজ করে প্রসংশিত হন।

সাধারণ আইজীবীদের দাবির মুখে এবারও তাকে সাধারণ সম্পাদক পদে মনোনয়ন দেওয়া হয়। মনোনয়ন পাওয়ার পর থেকে অ্যাডভোকেট লুৎফর রহমান কর্মীসমর্থক নিয়ে রাত-দিন চষে বেড়াচ্ছেন ভোটের মাঠ। আইনজীবিদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন। সারাও পাচ্ছেন বেশ।

জেলা পরিষদ সদস্য তরুন আইনজীবি কহিনুর ইসলাম সানিসহ বেশ কয়েকজন আইনজীবি বলেন, এবারও সম্মিলিত আইনজীবি সমন্বয় পরিষদ প্যানেল সুবিধাজনক অবস্থায় রয়েছে। বিশেষ করে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী লুৎফর রহমানের অবস্থা ভাল। তিনি আইনজীবীদের কল্যাণ ও স্বার্থ রক্ষার্থে নিরালসভাবে কাজ করে ভোটারদের নজর কাড়তে সক্ষম হয়েছেন। অধিকাংশ ভোটারের ধারণা, তার বিজয় ঠেকিয়ে রাখা কঠিন। শেষ পর্যন্ত তিনি বিজয়ী হবেন।

অ্যাডভোকেট লুৎফর রহমান বলেন, গত নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে আইনজীবীদের কল্যাণ ও স্বার্থ রক্ষায় নিরালসভাবে করেছি। বিপদ-আপদে পাশে দাড়িয়েছি। চেষ্টা করেছি আইনজীবিদের দু:খ কষ্ট মুচোন ও মুখে হাসি ফোটাতে। নির্বাচনে ভোটারদের ব্যাপক সারা পাচ্ছি। আমার দৃঢ বিশ্বাস এবারও বিপুল ভোটে বিজয়ী হবো। বিজয়ী হলে আমার উরপ অর্পিত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি সব সময় আইনজীবীদের স্বার্থ রক্ষার্থে নিরালসভাবে কাজ করবো।

আরও পড়ুন