৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |
  • প্রচ্ছদ
  • মানিকগঞ্জ-২ আসনের এমপি হতে চান তরুণ আইনজীবি আসিফ
  • মানিকগঞ্জ-২ আসনের এমপি হতে চান তরুণ আইনজীবি আসিফ

    জনশক্তি, ঢাকা:
    মানিকগঞ্জ-২ (সিঙ্গাইর-হরিরামপুর) আসনের এমপি হয়ে উন্নয়নের দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে চান মহাজোটের শরিক বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন (বিটিএফ) নেতা অ্যাডভোকেট ফেরদৌস আহমেদ আসিফ। এ লক্ষে তিনি একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের পর জমা দিয়েছেন। মহাজোটের টিকিট নিশ্চিত করতে জোর তৎপরতার পাশাপাশি গণসংযোগসহ নানা ভাবে চেষ্টা করছেন ভোটারদের মনজয় করার। ইতিমধ্যে গরীব ও অসহায় মানুষদের বিনামুল্যে আইনী সহায়তা ও আর্তমানবতার সেবা করে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেছেন তরুণ এই আইনজীবি।

    অ্যাডভোকেট ফেরদৌস আহমেদ আসিফ বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন (বিটিএফ) কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, ঢাকার সাভার উপজেলা শাখার আহ্বায়ক, ইন্টারন্যাশনাল লায়ন ক্লাব, বাংলাদেশ বার কাউন্সিল ও ঢাকা আইনজীবি সমিতির সদস্য। তিনি ১৯৮২ সালে মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর উপজেলার ধল্লা ইউনিয়নের আঠালিয়া গ্রামে জন্মগ্রহন করেন। তাঁর পিতার নাম চাঁন মিয়া ও মাতা সুফিয়া বেগম। আসিফ ১৯৯৮ সালে সিঙ্গাইর উপজেলার ঐতিহ্যবাহি রায়দক্ষিন কহিনুর মেমোরিয়াল উচ্চবিদ্যালয় থেকে এস,এসসি, ২০০০ সালে সাভার জাহাঙ্গীরনগর স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এইচ,এসসি, ২০০২ সালে সাভার বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে গ্রাজুয়েশন, ২০০৪ সালে একই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে মাস্টারস অব সাইন্স (এম,এসসি), ২০০৬ সালে মানিকগঞ্জ নুরুল ইসলাম ল কলেজ থেকে ব্যাচেলর অব ল (এল,এলবি) ও ২০১২ সালে ঢাকার মিরপুর প্রাইম ইউনিভার্সিটি থেকে মাস্টারস অব ল (এলএলএম) ডিগ্রি অর্জন করেন। এরপর ঢাকা ইউনিভার্সিটির ভাষা ইনিস্টিউট থেকে ইংলিশ কোর্স সম্পন্ন করেন তিনি।

    পড়াশোনার পার্ট চুকিয়ে অ্যাডভোকেট ফেরদৌস আহমেদ আসিফ ২০০৯ সালে আইন পেশায় যুক্ত হন। ২০১৫ সালে সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারীর ডাকে সারা দিয়ে তাঁর দল বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনে যোগদেন তিনি। দক্ষ সংগঠক হিসেবে ২০১৬ সালে ঢাকার সাভার উপজেলা তরিকত ফেডারেশনের আহ্বায়ক ও চলতি বছর দলটির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নির্বাচিত করা হয় এই তরুণ আইনজীবিকে।

    সিঙ্গাইর উপজেলা তরিকত ফেডারেশনের সদস্য সচিব আব্দুল আজিজ দেওয়ান ও যুগ্ম-আহ্বায়ক আলাউদ্দিন আল চিশতি জানান, অ্যাডভোকেট ফেরদৌস আহমেদ আসিফ মুক্তিযুদ্ধ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনার একজন সমাজ হিতৈশী মানুষ। ধর্মীয় কাজ ও শিক্ষা বিস্তারে রয়েছে তাঁর প্রচন্ড আগ্রহ। তিনি দীর্ঘদিন ধরে অসহায় ও দরিদ্র মানুষকে বিনামুল্যে আইনী সহায়তার পাশাপাশি অবহেলিত জনগোষ্ঠির ভাগ্য উন্নয়নে নিরালসভাবে কাজ করছেন। তাঁর মতো মানুষ এমপি হলে অবহেলিত জনপথটির আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন ঘটবে।

    অ্যাডভোকেট ফেরদৌস আহমেদ আসিফ বলেন, সব দলই এখন মনোনয়ন দেওয়ার ক্ষেত্রে তরুণদের প্রাধান্য দিচ্ছে। দেশ ও জাতীর উন্নয়নে তরুণদের বিকল্প নেই। দীর্ঘদিন ধরে মহাজোট সরকারের উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় ভূমিকা রেখেছি। এছাড়া সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে কাজ করছি এলাকার মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে। বিপদ-আপদে সব সময় এলাকাবাসীর পাশে ছিলাম। এলাকার মানুষ, বিশেষ করে তরুণ প্রজন্ম চায় আমি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করি। আর্তমানবতার সেবা ও এলাকাবাসীর ইচ্ছার প্রতি সম্মান দেখিয়ে আসন্ন একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করছি। আমার দৃঢ় বিশ্বাস, এবার মহাজোটের মনোনয়ন আমাকে দেওয়া হবে। শুধু মিথ্যা প্রতিশ্রুতি নয়, এমপি হতে পারলে দক্ষিন মানিকগঞ্জকে উন্নয়নের মডেল হিসেবে গড়ে তুলবেন বলে জানান তরুণ এই আইজীবি।

    জনশক্তি/এমএইচ

    আরও পড়ুন

    [X]