১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |
  • প্রচ্ছদ
  • মানিকগঞ্জ-২ আসনের জাপা প্রার্থী মান্নানের গাড়ি বহরে হামলা ও ক্যাম্প ভাঙচুর
  • মানিকগঞ্জ-২ আসনের জাপা প্রার্থী মান্নানের গাড়ি বহরে হামলা ও ক্যাম্প ভাঙচুর

    সৈয়দ আশরাফুল আলম, ঢাকা:
    মানিকগঞ্জ-২ সিংগাইর-হরিরামপুর) আসনের জাতীয় পার্টি প্রার্থী সাবেক এমপি সৈয়দ আব্দুল মান্নানের গাড়ি বহরে হামলার অভিযোগ উঠেছে। আজ শনিবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে জেলার হরিরামপুর উপজেলা পরিষদের গেটে এ ঘটনা ঘটে। এঘটনায় আব্দুল মান্নানের ব্যবহৃত ল্যা-ক্রজার গাড়িসহ অন্তত ১০টি মটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়। এদিকে গত শুক্রবার সন্ধায় সিঙ্গাইর উপজেলার নয়াপাড়াস্থ নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুর করা হয়। সৈয়দ আব্দুল মান্নানের অভিযোগ, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে। দুটি ঘটনায় এক সংবাদকর্মীসহ জেলা ও স্থানীয় জাতীয় পার্টির ১০-১২ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে। তাদের চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
    স্থানীয় জাতীয় পার্টি সূত্রে জানাযায়, সৈয়দ আব্দুল মান্নান গতকাল শনিবার দলীয় নেতাকর্মী নিয়ে হরিরামপুর উপজেলায় গণসংযোগ করছিলেন। দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে উপজেলা পরিষদের গেটে পৌছলে হরিরামপুর উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আমীনুল ইসলাম ও ছাত্রলীগ নেতা শুভ মল্লিকের নেতৃত্বে ২০-৫০ জন নৌকার সমর্থক লোহার রড ও দেশীয় অস্ত্রঅস্ত্র নিয়ে সৈয়দ আব্দুল মান্নানের গাড়ি বহরে হামলা করে। এসময় ভাঙচুর করা হয় সৈয়দ আব্দুল মান্নানের ব্যবহৃত ল্যা-ক্রজার গাড়ি কাঁচসহ অন্তত ১০টি মটরসাইকেল। এঘটনায় আহত হন স্থানীয় দৈনিক আমার নিউজ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার শুভঙ্কর পোদ্দার, হরিরামপুর উপজেলা ছাত্র সমাজের আহ্ববায়ক সাইফুল ইসলাম, জাতীয় পার্টি নেতা জসিম উদ্দিন ও ছাত্র সমাজ নেতা শরীফ হোসেনসহ অন্তত ১০ জন নেতাকর্মী। তাদের জেলা ও উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
    এদিকে গত শুক্রবার সন্ধায় সিঙ্গাইর উপজেলার নয়াপাড়াস্থ জাতীয় পার্টির নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুর করে স্থানীয় নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা। এসময় মারধর করা হয় উপজেলা যুব সংহতি নেতা কাওয়াসার খান ও ছাত্র সমাজ নেতা নাজমুল খানকে।
    সৈয়দ আব্দুল মান্নান জানান, আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা আমার ব্যবহৃত গাড়ি ও নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুর চালিয়েছে। এ ঘটনায় রিটার্নিং কর্মকর্তা ও থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হবে।
    হরিরামপুর উপজেলা যুবলীগের আহ্ববায়ক আমীনুল ইসলাম হামলার কথা অস্বীকার করে জানান, সৈয়দ আব্দুল মান্নানের গাড়ি বহরে হামলা ও ভাঙচুরের সাথে তিনিসহ আওয়ামীলীগের কোন নেতাকর্মী জড়িত নন। নিশ্চিত পরাজয় জেনে আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করছেন তিনি। জাতীয় পার্টির অভ্যন্তরীন কোন্দলে জের ধরে প্রতিপক্ষ গ্রুপের নেতাকর্মীরা হামলা ও গাড়ি ভাঙচুর করতে পারে বলে জানান তিনি।
    জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক এসএম ফেরদৌস জানান, এ বিষয়ে এখনো কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

    জনশক্তি/এমএইচ

    আরও পড়ুন

    [X]