১৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বাবুলের দাফন সম্পন্ন

জনশক্তি রিপোট

চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন দেশের অন্যতম শীর্ষ ব্যবসায়ী যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম বাবুল। আজ মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) বাংলাদেশ স্থানীয় সময় বেলা আড়াইটার দিকে বনানী কবরস্থানে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাঁকে দাফন করা হয়। এর আগে বাদ জোহর রাজধানীর যমুনা ফিউচার পার্ক প্রাঙ্গণে তাঁর জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজার পর এই বীর মুক্তিযোদ্ধাকে গার্ড অব অনার দেওয়া হয়।

জানাজার আগে বাবার রুহের মাগফিরাত ও বেহেশত কামনায় দোয়া চান নুরুল ইসলাম বাবুলের ছেলে ও যমুনা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শামীম ইসলাম। তিনি মুক্তিযুদ্ধ ও তার পরবর্তী সময়ে দেশের কল্যাণে নুরুল ইসলাম বাবুলের অবদানের কথা স্মরণ করেন। জানাজায় অংশ নেওয়ার জন্য সব মুসল্লির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান শামীম ইসলাম।

নুরুল ইসলাম বাবুল (৭৪) সোমবার (১৩ জুলাইল) বাংলাদেশ স্থানীয় সময় বিকেল ৩টা ৪০ মিনিটে রাজধানীর বেসরকারি এভার কেয়ার (সাবেক অ্যাপোলো) হাসপাতালে মারা যান। তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও তিন মেয়ে রেখে গেছেন। তাঁর মৃত্যুতে দেশের শিল্প খাতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বরেণ্য শিল্পপতি নুরুল ইসলাম বাবুল দৈনিক যুগান্তর ও যমুনা টেলিভিশন প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। যমুনা ফিউচার পার্কও এই শিল্পগোষ্ঠীর অন্যতম স্থাপনা।

নুরুল ইসলাম বাবুল ১৯৭৪ সালে যমুনা গ্রুপ প্রতিষ্ঠার পর একে একে গড়ে তুলেছিলেন অন্তত ৩৮টি শিল্পপ্রতিষ্ঠান, যেখানে কর্মসংস্থান তৈরি করেছিলেন হাজার হাজার মানুষের। নুরুল ইসলাম বাবুলের জন্ম ১৯৪৬ সালে ঢাকার নবাবগঞ্জের কামালখোলা গ্রামে। তাঁর স্ত্রী সাবেক মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এবং বর্তমান জাতীয় সংসদের সদস্য সালমা ইসলাম। ছেলে শামীম ইসলাম যমুনা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক,মেয়ে রোজালিন ইসলাম,মনিকা ইসলাম ও সনিয়া ইসলাম যমুনা গ্রুপের পরিচালক।

আরও পড়ুন