২৪শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
পৌর নির্বাচন ও দলীয় কাউন্সিলকে সামনে রেখে সিঙ্গাইর উপজেলা আ.লীগের বর্ধিত সভা গৃহকর্মীকে ধর্ষণের পর সাততলা থেকে ফেলে দেওয়া হয় ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ: মজনুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ঢাকা মহানগর উত্তর আ.লীগের অর্থ সম্পাদক হলেন শিল্পপতি সালাম চৌধুরী টিউশন ফি ছাড়া অন্য খাতে অর্থ নিতে পারবে না স্কুল-কলেজ লেবানন কেন্দ্রীয় আ’লীগের আহ্বায়ক কমিটি গঠন সত্যি হলো আসিফ নজরুলের ভবিষ্যত বানী, বাইডেন ৩০৬ ও ট্রাম্প ২৩২ সিঙ্গাইরে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার লক্ষে নারী উন্নয়ন সংস্থার সংবাদ সম্মেলন ফ্রান্সে মহানবীর (সা) ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন: প্রতিবাদে তারাকান্দায় মিছিল সমাবেশ বাসে আগুন, বিএনপির ৪৪৬ নেতাকর্মীর নামে ৯ মামলা,আটক ২০
  • প্রচ্ছদ
  • মার্কিন ঘাঁটিতে যে হামলা করা হয়েছে তা একটি চপেটাঘাত মাত্র




  • মার্কিন ঘাঁটিতে যে হামলা করা হয়েছে তা একটি চপেটাঘাত মাত্র

    আজ ভোরে যে প্রতিশোধ নেয়া হয়েছে তা কেবল একটি চপেটাঘাত মাত্র বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী। বুধবার, জেনারেল সোলাইমানিকে হত্যার প্রতিশোধ হিসেবে ইরাকের মার্কিন ঘাঁটিতে হামলার পর এক সমাবেশে একথা বলেন তিনি।

    তিনি বলেন, গতরাতে একটি চপেটাঘাত করা হয়েছে। তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো গোটা অঞ্চলে মার্কিন সেনা উপস্থিতির অবসান ঘটাতে হবে। তারা এই অঞ্চলে যুদ্ধ, বিশৃঙ্খলা ও ধ্বংসযজ্ঞ নিয়ে এসেছে। বিভিন্ন দেশের অবকাঠামো ধ্বংস করে দিচ্ছে।

    এর আগে, বুধবার বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে ৪টার দিকে দুটি মার্কিন বিমানঘাঁটিতে ১৫টি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইরান। ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের বরাতে আল জাজিরা জানিয়েছে, হামলায় অন্তত ৮০ মার্কিন সেনা নিহত হয়েছে।

    ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগন। ক্ষয়ক্ষতি ও হতাহতের বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখছে তারা। যদিও ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন জানিয়েছে, ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ৮০ মার্কিন সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে এবং মার্কিন হেলিকপ্টার ও সামরিক যন্ত্র ধ্বংস হয়েছে। তবে, এ বিষয়ে কোনো প্রমাণ দেয়নি তেহরান।

    এদিকে, ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে হামলার পর এবার খোদ যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে হামলার হুমকি দিয়েছে ইরান। একইসঙ্গে যেসব দেশ তাদের ঘাঁটি যুক্তরাষ্ট্রের হাতে তুলে দিয়েছে, তাদের প্রতিও হুঁশিয়ারি দিয়েছে তেহরান। বলা হয়েছে, যে দেশের ভূমি থেকে ইরানের ওপর হামলা চালানো হবে, সেই দেশকে শত্রু দেশ চিহ্নিত করে হামলা চালানো হবে।

    ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে হামলার পর, হোয়াইট হাউসের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। জাতীয় নিরাপত্তা টিমের সঙ্গে বৈঠক করেছেন ট্রাম্প। যদিও হামলার পর, এক টুইটে ট্রাম্প মন্তব্য করেন, ‘অল ইজ ওয়েল’।

    এদিকে, লেবাননের সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছে, যুক্তরাষ্ট্র পাল্টা আঘাত করলে তারা ইসরায়েলে হামলা চালাবে। এছাড়া, ইরানের আকাশসীমা এড়িয়ে চলার ঘোষণা দিয়েছে মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর ও চীন।

    আরও পড়ুন