২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
সিঙ্গাইরে শিশু বলাৎকার মামলার প্রধান আসামী মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেফতার লেবাননে ফের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, প্রবাসীদের উপচেপড়া ভির লেবানন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত সিঙ্গাইরে দেয়ালে অঙ্কিত বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলনের আজ শুভ জন্মদিন বিএনপির ৪৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে মালয়েশিয়ায় ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত যে কারণে হত্যার শিকার শিশু আল-আমীন, রহস্য উদঘাটন সিঙ্গাইর থানার ওসির পিতার মাগফিরাত কামনায় দোয়ার মাহফিল কানাডা প্রবাসী প্রয়াত জয়নুল আবেদীন স্বরণে দোয়ার মাহফিল তিনদিন পর সিঙ্গাইরে নিখোঁজ শিশুর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে পাকিস্তানকে হারাল আফগানিস্তান

ফাইল ছবি

জনশক্তি ডেস্ক: শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে পাকিস্তানকে ৩ উইকেটে হারাল আফগানিস্তান। শেষ ওভারে আফগানদের প্রয়োজন ৪ রান। বল হাতে আসেন পেসার ওয়াহাব রিয়াজ। স্ট্রাইকে থাকা রশিদ খান প্রথম বলে কোন রান নিতে পারেননি ওয়াহাবের বলে। তখন ৫ বলে প্রয়োজন দলের ৪ রান। দ্বিতীয় বলে রশিদ ২ রান নিতে সক্ষম হন। তৃতীয় বল থেকে এক রান নিয়ে ম্যাচ ড্র করেন। ওভারের চতুর্থ বলে জয়সূচক ১ রান নিয়ে মাঠ ছাড়েন রশিদ খান ও হাসমতউল্লাহ শাহেদি।

বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে টসে জিতে আগে ব্যাটিং করতে নেমে বাবরর আজমের (১১২) সেঞ্চুরির ওপর ভর করে ২৬২ রান সংগ্রহ করে পাকিস্তান। ব্রিস্টলে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় শুরু হওয়া ম্যাচে ৪৭ দশমিক ৫ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ২৬২ রান করতে সক্ষম হয় সারফরাজ আহমেদের দল।

ব্যাট করতে নেমে স্কোর বোর্ডে একশ রান তুলতেই চার উইকেট হারায় পাকিস্তান। ইমাম উল হক(৩২), ফখর জামান (১৯), হারিস সোহেল(১) ও মোহাম্মাদ হাফিজ(১২) আউট হয়েছেন। পঞ্চম উইকেট জুটিতে শোয়েব মালিক ও বাবার আজম মিলে গড়েন ১০৩ রানের জুটি। মালিক ৪৪ রান করে মোহাম্মদ নবীর বলে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। মাঠে নেম সরফরাজ আহমেদও ১৩ রান করে রশিদ খানের বলে আউট হয়ে মাঠ ছাড়েন। নিয়মিত উইকেট হারাতে থাকলেও একপ্রান্ত আগলে রেখে খেলতে থাকেন বাবর আজম। ৯৯ বলে তুলে নেন সেঞ্চুরি। এরপর তিনিও আর বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে পারেননি মাঠে। ১০ চার ও ২ ছক্কায় ১০৮ বলে ১১২ রান করে দৌলত জারদানের শিকার হন বাবর। এরপর ক্রিজে এসে আর কোন ব্যাটসম্যান বলার ভালো ইনিংস খেলতে পারেননি। শেষ দিকে ইমাদ ওয়াসিম করেন সর্বোচ্চ ১৮ রান।

আফগান বোলাদের মধ্যে মোহাম্মদ নবী ৩টি, দৌলত জারদান ও রশিদ খান ২টি করে উইকেট নেন।

২৬৩ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ব্যক্তিগত ২৩ রানে আফগানিস্তানের ওপেনার মোহাম্মদ শেহজাদে আহত হয়ে মাঠ ছাড়েন। ওয়ানডাউনে নেমে রহমত শাহ ও আরেক ওপেনার হযরতউল্লাহ জাজাই মিলে দলকে নিয়ে যান ৮০ রানে। ২৮ বলে ৪৯ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে শাদাব খানের শিকার হন জাজাই। রহমত শাহের ৩২, সামিউল্লাহ সিনওয়ারির ২২, মোহাম্মদ নবী ৩৪, রশিদ খানের অপরাজিত ৫ ও হাসমতউল্লাহ শাহেদির ১০২ বলে হার না মানা ৭৪ রানের ইনিংসের ওপর ভর করে ৪৯ দশমিক ৪ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় আফগানিস্তান।

পাকিস্তানের বোলারদের মধ্যে ওয়াহাব রিয়াজ ৩টি, ইমাদ ওয়াসিম ২টি, মোহাম্মদ হাসনাইন ও শাদাব খান একটি করে উইকেট নেন।

আরও পড়ুন