১৬ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল করেছে মালয়েশিয়া যুবদল ডক্টরেট ডিগ্রি পেলেন কন্ঠশিল্পী মমতাজ সিংগাইরে শয়ন কক্ষ থেকে এক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার মানিকগঞ্জে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ৭ জন সালথায় সহিংসতায় ৪ হাজার জনকে আসামি করে মামলা করেছে পুলিশ ‘শিশু বক্তা’ মাওলানা রফিকুল ইসলামকে র‌্যাব পরিচয়ে তুলে নেয়ার অভিযোগ! সিঙ্গাইর সদর ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক সেলিম ও যুগ্ম-আহ্বায়ক সালাম ফরিদপুরের সালথা উপজেলা পরিষদ ও থানা ঘেরাও, এসিল্যান্ড অফিসে আগুন সিঙ্গাইরে লকডাউন কার্যকরে তৎপর প্রশাসন করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ও অপরাধ নির্মূলে তৎপর সিঙ্গাইর থানা পুলিশ
চরফ্যাশনে আছলামপুর পল্লী বিদ্যুৎ লাইন পাইয়ে দিতে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে দালালচক্র

সংবাদকর্মীদের কাছে অভিযোগ

এম. মাহাবুবুর রহমান নাজমুল, জেলা প্রতিনিধি, ভোলা।।

চরফ্যাশনে আছলামপুর গ্রামে পল্লী বিদ্যুৎ নতুন লাইন চালু করার নামে গ্রাহকদের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে দালালচক্র। গ্রামের সহজ সরল মানুষ তাদের মিষ্টি কথায় বিশ্বাস করে অনিশ্চয়তায় গচ্ছিত টাকা তুলে দেয় তাদের হাতে। একজন টাকা হাতিয়ে নিলে আরেকজন টাকা নিতে মরিয়া হয়ে উঠে। এমনি করে একের পর এক দালাল চক্র গ্রামের সহজ সরল মানুষের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে হরহামেশে। এমনি অভিযোগ উঠে চরফ্যাশন প্রত্যন্ত অঞ্চল আছলামপুর ইউনিয়ন ৪নং ওয়ার্ডে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সারাদেশের ন্যায় চরফ্যাশনেও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষিত রুপকল্প “প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগ, ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ” পৌছে দেওয়ার নিমিত্তে প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে বিভিন্ন ইউনিয়নে বিদ্যুৎ উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় আছলামপুর গ্রামের বিদ্যুতের নতুন লাইন সংযোগের বাজেট হওয়ার সাথে সাথে দালাল চক্র মেতে উঠে গ্রাহকদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিতে। প্রথমে এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব শফিক মাঝি, বাকি বিল্লাহ, পল্লি বিদ্যুৎ অফিসের লাইন ম্যান হাসান, সহকারি লাইনম্যান মোঃ ছগির সহ কয়েকজন মিলে প্রত্যেক গ্রাহকদের কাছ থেকে ৩৫০০ থেকে ২০ হাজার টাকা করে প্রায় ২ শত গ্রাহকদের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। ভুক্তভোগীরা বিদ্যুতের আশায় প্রতারিত হয়ে এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদের জানালে এলাকাবাসির পক্ষে আব্বাস, ছকিনা, আলী আজগর, মোঃ হাসনাইন, নুর ইসলাম সহ প্রায় অর্ধশত ভূক্তভূগিরা অভিযোগ করেন।

অভিযোগ পেয়ে গত ২৯ নভেম্বর সরজমিনে খোজ নিয়ে এর সত্যতা পাওয়া যায়। এসময় বিদ্যুৎ এর টাকা ফেরৎ, দালাল চক্রের বিচার ও দ্রæত বিদ্যুৎ পেতে ভুক্তভোগী ও স্থানীয়রা মিছিল সহকারে বেরিয়ে আসেন। মিছিলের প্রতিপাদ্য ছিল, “দালাল চক্রের বিচার চাই, টাকা ফেরত চাই, সঠিক ম্যাপের বিদ্যুৎ লাইন চাই।” ভোলা পল্লি বিদ্যুৎ সমিতির ডিজিএম এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমারদের অফিসের কেউ জড়িত থাকলে আইনগত ব্যবস্থা নেব।

এলাকাবাসীগণ সংবাদকর্মীদের সামনেই চরফ্যাসন সাব-জোনাল পল্লি বিদ্যুৎ অফিসের সহকারী লাইনম্যান ছগির আহাম্মদের ব্যবহৃত মোটর সাইকেল সহ অবরুদ্ধ করে ও তাকে মারধরে উদ্ধ্যত হয়। ভুক্তভোগীরা জানান, লাইনম্যান হসানের নির্দেশে তার সহকারী ঘড়ে ঘড়ে মিটার সংযোগ দেয়ার কথা বলে টাকা উত্তোলন কালে স্থানীয়দের রোষানলে পড়ে। এলাকাবাসির অভিযোগ ইতিপূর্বে চরফ্যাশন উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে এ ধরনের কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে বীরদর্পে। গিলে খাচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। দালাল চক্রের খুঁটির জোর কোথায়? এই প্রশ্ন এখন সকলের মুখে মুখে।

আরও পড়ুন