২৮শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |
  • প্রচ্ছদ
  • সিঙ্গাইরে এতিমখানার জমি দখলের চেষ্টা,সাংবাদিকসহ পাঁচজন আহত
  • সিঙ্গাইরে এতিমখানার জমি দখলের চেষ্টা,সাংবাদিকসহ পাঁচজন আহত

    জনশক্তি রিপোর্ট:

    মানিকগঞ্জে সিঙ্গাইরে একটি এতিমখানার জমি দখলের প্রতিবাদ করায় গ্রামবাসীর উপর হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮ টার দিকে উপজেলার জামির্তা ইউনিয়নের চাপরাইল পিতৃহীন দুস্থ বালক এতিখানা মাদ্রাসায় এই হামলার ঘটনা ঘটে। এঘটনায় অনলাইন নিউজ পোর্টাল সময় বাংলার সম্পাদক স্থানীয় সমাজকর্মী ইঞ্জিনিয়ার আবু সায়েমসহ পাঁচজন গুরুতর আহত হয়েছে। আহত অপর চারজন হলেন, একই এলাকার আব্দুল মতিন (৪০), গোলাম সারোয়ার (৪৫), আনোয়ার হোসেন (৪৫) ও অনিক হোসেন (১৮)। তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনায় থানায় অভিযোগ জমা দিয়েছেন আহত সমাজকর্মী আবু সায়েম।

    লিখিত অভিযোগ ও স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার জামির্তা ইউনিয়নের চাপরাইল গ্রামে দীর্ঘদিন আগে ৩৩ শতাংশ জমির উপর এলাকাবাসীর সহযোগীতায় পিতৃহীন দুস্থ বালক এতিখানা নামে একটি মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করেন শিল্পপতি নাসির উদ্দিন আহমেদ কাজল মিয়া। ওই এতিমখানার কিছু অংশ জমির মালিকানা দাবি করে তা দখলের চেষ্টা করে আসছিলেন স্থানীয় ভূমিদস্যু আব্দুল মালেক ও তার পরিবারের লোকজন। মঙ্গলবার ভোরে আব্দুল মালেক ও তার লোকজন এতিমখানার জমি দখল করে ঘর তুলতে যান। সকাল ৮ টার দিকে খবর পেয়ে ঘর তুলতে বাঁধাদেন অনলাইন নিউজ পোর্টাল সময় বাংলার সম্পাদক স্থানীয় সমাজকর্মী আবু সায়েমসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও গ্রামের লোকজন। এসময় দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে নিরস্ত্র গ্রামবাসীর উপর হামলা করেন আব্দুল মালেক ও তার স্বজনরা। হামলায় ধারালো অস্ত্র ও লাঠির আঘাতে সাংবাদিক আবু সায়েম, আব্দুল মতিন, গোলাম সারোয়ার, আনোয়ার হোসেন ও অনিক হোসেন আহত হন। আহতদের প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে আবু সায়েম ও আব্দুল মতিনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

    এঘটনায় আব্দুল মালেক, তার ছেলে আলমগীর হোসেন, ভাই মো: শহিদ, স্বজন সাইফুল ইসলাম, রিপন হোসেন, মো: রাতুল হোসেন, কাইয়ুম হোসেন ও বিপ্লব হোসেনসহ অজ্ঞাত আরও ৮-১০ জনকে অভিযুক্ত করে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ইঞ্জিনিয়ার আবু সায়েম।

    অভিযুক্ত আব্দুল মালেক বলেন, এতিমখানার ভিতরে আমাদের জমি রয়েছে। সেই জমিতে ঘর তুলতে গেলে গ্রামের লোকজন বাঁধা দেয়। এসময় গ্রামবাসীর হামলায় আমিসহ অামার পরিবারে কয়েকজন আহত হয়েছে।

    থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) শেখ মো: আবু হানিফ বলেন, এঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনার সত্যতা সাপেক্ষে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

    আরও পড়ুন