২১শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

সিঙ্গাইরে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে আড়াই লাখ টাকা ছিনতাই

জনশক্তি রিপোর্ট:

মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে মুরগীবাহী একটি পিকআপভ্যান আটকিয়ে আড়াই লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার (২০ জুলাই) বিকাল ৫ টার দিকে উপজেলার সিঙ্গাইর-মানিকনগর রোডের আজিমপুর নয়াডাঙ্গি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এঘটনায় ছিনতাইকারীদের মারধরে পিকআপভ্যান চালক ও তার সহকারি আহত হয়েছে।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার বিকাল সাড়ে চারটার দিকে পরিবহন চালক বাবুল হোসেন ঢাকার সাভারের হেমায়েতপুরে নাবিয়া এন্টারপ্রাইজের মালামাল বহনকারী পিকআপভ্যান (ঢাকা-মেট্টো-ন-১৯-০৪৯২) নিয়ে মুরগী নেয়ার জন্য সিঙ্গাইর ঘোনাপাড়া এলাকায় অবস্থিত পোলট্রি ফার্মের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। পথিমধ্যে মালিকপক্ষের পাওনা টাকা আনতে সিঙ্গাইর-মানিকগর সড়ক হয়ে উপজেলার সাহরাইল এলাকার এক ব্যবসায়ীর কাছে যাচ্ছিল গাড়িটি। নয়াডাঙ্গি এলাকায় পৌছলে প্রাইভেটকার থেকে নেমে চারজন লোক ডিবি পুলিশ পরিচয়ে পিক-আপভ্যানটির গতিরোধ করে। এসময় কাগজপত্র দেখার কথা বলে গাড়ির চালক বাবুল হোসেন (৪৫) ও হেলপার মামুন হোসেনকে (২০) বেধড়ক মারধর করে আড়াই লাখ টাকা, একটি মোবাইল সেট, ড্রাইভিং লাইসেন্স ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায় তারা।

পিকআপভ্যান চালক বাবুল হোসেন বলেন, ছিনতাইকারীদের ব্যবহৃত প্রাইভেটকারটি ১৪ সিরিয়ালের। ছাই রঙের গাড়িটি সিঙ্গাইর বাসস্ট্যান্ড পেট্রোল পাম্প থেকে আমাদের পিছু নেয়। নয়াডাঙ্গি এলাকায় পৌছলে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে চারজন লোক কাগজপত্র দেখার কথা বলে গাড়ি থামান। এসময় মারধর করে আমাদের কাছে থাকা আড়াই লাখ টাকা, একটি মোবাইল সেট, ড্রাইভিং লাইসেন্স ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায় তারা।

সিঙ্গাইর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম বলেন, ছিনতাইয়ের ঘটনাটি রহস্যজনক। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পিকআপভ্যান চালক ও তার সহকারীর সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন