২৪শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
  • প্রচ্ছদ
  • সিঙ্গাইরে মাদরাসাছাত্রী ধর্ষণ, ৩ দিন পর মামলা




  • সিঙ্গাইরে মাদরাসাছাত্রী ধর্ষণ, ৩ দিন পর মামলা

    rape-ধর্ষণ-গণধর্ষণ

    মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরে এক মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের তিন পর থানায় মামলা হয়েছে। গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে অভিযুক্ত দুই জনকে আসামী করে এই মামলা করেন ধর্ষীতার বাবা। মামলার আসামীরা হলেন, উপজেলার গোবিন্দল গ্রামের লাভলু মিয়ার ছেলে মো: রুবেল (৩০) ও তার বন্ধু ফজলু মিয়ার ছেলে শিবলি (৩০)। ঘটনাটি গোপনে ধামাচাঁপা দেওয়ার চেষ্টা করছিল স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল।

    ধর্ষিতার পারিবার ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ধর্ষণের শিকার মাদ্রাসা ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল উপজেলার গোবিন্দল গ্রামের লাভলু মিয়ার ছেলে মো: রুবেলের। গত ২২ ফেব্রুয়ারি (শনিবার) সকালে রুবেল বিয়ের কথা বলে ওই মাদরাসা ছাত্রীকে তার বন্ধু শিবলির গোবিন্দল গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে একটি ঘরে শিবলির সহযোগীতায় তাকে একাধিকবার জোড়পূর্বক ধর্ষণ করে রুবেল। এক পর্যায়ে জ্ঞান হাড়িয়ে ফেলে সে। পরে রুবেল স্ত্রী পরিচয়ে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে চিকিৎসা দেন। ওই ছাত্রীর যৌনাঙ্গের ক্ষতস্থানে পাঁচটি সেলাই দেওয়া হয়।

    এদিকে ধর্ষিতার পরিবারকে অর্থের প্রলোভন ও ভয়ভীতি দেখিয়ে ঘটনাটি গোপনে ধামাচাঁপা দেওয়ার চেষ্টা করে আসছিল এলাকার একটি প্রভাবশালী মহল। পরে জানানি হলে বিষয়টি থানা পুলিশ পর্যন্ত গড়ায়।

    সিঙ্গইর থানার ওসি আব্দুস সাত্তার মিয়া বলেন, ঘটনাটি গোপনে ধামাচাঁপা দেওয়ার চেষ্টা করছিল স্থানীয় প্রভাবশালীরা। পরে ধর্ষিতার পরিবারকে থানায় ডেকে এনে মামলা নেওয়া হয়। আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

    Print Friendly, PDF & Email

    আরও পড়ুন