২৮শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
মালয়েশিয়ায় কোকোর ৭ম মৃত্যুবার্ষিকীতে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরে জুলহাস হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন মালয়েশিয়ায় স্বাধীনতার সুবর্ন জয়ন্তী ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৪ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা। সিঙ্গাইর টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ শতভাগ পাশ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগ বুকিত বিনতাং শাখার আলোচনা সভা তিন বছর পর বাংলাদেশ থেকে কর্মী নেবার সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করায় দোয়া মাহফিল সিঙ্গাইরের জয়মন্টপে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ অটোরিক্সার ইঞ্জিনে চাদর পেঁচিয়ে সিঙ্গাইরে ব্যবসায়ীর মৃত্যু সিঙ্গাইরে চোখ উপড়ানো ডাকাতের লাশ উদ্ধার সিঙ্গাইর সদরে ফ্রি রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কার্যক্রম অনুষ্ঠিত
  • প্রচ্ছদ
  • সিঙ্গাইরে যুবকের মরদেহ উদ্ধার, পরিবারের দাবি হত্যা
  • সিঙ্গাইরে যুবকের মরদেহ উদ্ধার, পরিবারের দাবি হত্যা

    জনশক্তি রিপোর্ট:

    মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরে লিটন মিয়া (৩৬) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার (৩ ডিসেম্বর) সকাল ১০ টার দিকে উপজেলার জামশা ইউনিয়নের গোলাইডাঙ্গা-বাস্তা এলাকার একটি সেতুর পাশ থেকে তার লাশ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। নিহত লিটন মিয়া ওই এলাকার মৃত আহমদ আলীর ছেলে। পরিবারের অভিযোগ, পুর্ব শত্রুতার জেরে পরিকল্পিত ভাবে তাকে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন।

    থানা পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার জামশা ইউনিয়নের গোলাইডাঙ্গা-বাস্তা গ্রামের লিটন মিয়ার সাথে ৫-৬ দিন আগে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে একই এলাকার তেলের মিলের মালিক গজিমুদ্দিনের জগড়া হয়। এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এঘটনায় লিটন মিয়া ও তার ভাগনে ইমরানসহ ৫-৬ আহত হয়। আহতরা সবাই হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। এঘটনায় গজিমুদ্দিনসহ প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেন লিটন মিয়া।

    লিটন মিয়ার ভাই সুরুজ মিয়া বলেন, লিটন বৃহস্পতিবার বিকাল ৪ টার দিকে বাড়ি থেকে বেড় হয়। রাতে বাড়িতে না ফেরায় অনেক খোজাখুঁজি করে কোথাও তাকে পাওয়া যায়নি। সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে গোলাইডাঙ্গা সেতুর পাশে তার মৃতদেহ পাওয়া যায়। ধারণা করিছি, শত্রুতার জেরে গজিমুদ্দিন ও তার লোকজন শুক্রবার রাতে লিটনকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করে তার লাশ সেতুর নীচে ফেলে রেখেছে।

    থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সফিকুল ইসলাম মোল্যা জানান বলেন, স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে নিহত লিটন মিয়ার লাশ উদ্ধার করে দুপুরের দিকে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর আসল রহস্য জানা যাবে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

    আরও পড়ুন