২৬শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
মিথ্যা মামলায় পুলিশ সদস্যকে হয়রানির অভিযোগ রাস্তার মুখে উঁচু দেয়াল, অবরুদ্ধ একটি মুসলিম পরিবার সিঙ্গাইরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা সিঙ্গাইরে ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মিঠু গ্রেফতার সিঙ্গাইরে ১১ ইউপিতে ৪৬ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল পাবজি খেলা নিয়ে দ্বন্দ্ব, সিঙ্গাইরে বন্ধুর হাতে প্রাণ গেল কিশোরের স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র ছিনতাইয়ের অভিযোগে আ.লীগ প্রার্থীর ছেলে আটক সিঙ্গাইরে শিশু বলাৎকার মামলার প্রধান আসামী মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেফতার লেবাননে ফের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, প্রবাসীদের উপচেপড়া ভির লেবানন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

নিজ দলের সন্ত্রাসীদের হাতে সিঙ্গাইর উপজেলা ছাত্রলীগ সম্পাদক মিরু খুন

জনশক্তি রিপোর্ট:

মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন (২৫) মিরুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে নিজ দলের সন্ত্রাসীরা। নিহত মিরু পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের আজিমপুর (রংয়ের বাজার) গ্রামের আব্দুল কাদেরের ছেলে। সে সিঙ্গাইর সরকারী কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি ছিলেন। গত সোমবার (১ মার্চ) দিবাগত রাত একটার দিকে উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন পুরাতন গোডাউনের সামনে সন্ত্রাসী হামলার শিকার হন মিরু। মঙ্গলবার (২ মার্চ) দুপুরে জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতালে(পঙ্গু) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারাযান তিনি। নিহতের পরিবারের অভিযোগ, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে উপজেলা পরিবহন শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন আঙ্গুর (৩২), তার ভাই সিঙ্গাইর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোল্লা মো: দুলাল (২৫) ও তাদের লোকজন ফারুক হোসেন মিরুকে কুপিয়ে হত্যা করেছে। জালাল উদ্দিন আঙ্গুর ও মোল্লা মো: দুলাল একই এলাকার দোনাই মোল্লার ছেলে।

নিহতের পারিবারিক, দলীয় ও স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, মাস দেড়েক আগে এলাকার আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সিঙ্গাইর কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোল্লা মোহাম্মদ দুলাল ও  উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন মিরু মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। গত সোমবার (১ মার্চ) রাতে স্থানীয় সংসদ সদস্য কণ্ঠশিল্পী মমতাজ বেগমের উপজেলার ভাকুম গ্রামের বাসায় গানের অনুষ্ঠান ছিল। গানের অনুষ্ঠান শেষে সেখান থেকে রাত একটার দিকে মোটরসাইকেলে করে ছাত্রলীগ নেতা ফারুক হোসেন মিরু পৌর এলাকার আঙ্গারিয়া মহল্লার ভাড়া বাসায় ফিরছিলেন। এসময় তার সঙ্গে বাসার মালিকের ছেলে আলমাছ হোসেন (৩০) ছিলেন। পরিবারের অভিযোগ, উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন পুরাতন গোডাউনের সামনে পৌছলে মিরুর মটরসাইকেলের গতিরোধ করে উপজেলা পরিবহন শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন আঙ্গুর, তার ছোট ভাই সিঙ্গাইর কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোল্লা মো: দুলালসহ ৭-৮ জন সন্ত্রাসী। এসময় মটরসাইকেল থেকে নামিয়ে ফারুক মিরুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথারি কুপিয়ে রাস্তার উপর ফেলে পালিয়ে যায় তারা।

উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহিদুর রহমান বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ফারুক হোসেন মিরুকে হত্যা করা হয়েছে। এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সিঙ্গাইর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোল্লা মোহাম্মদ দুলাল ও তাঁর বড় ভাই উপজেলা পরিবহন শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন আঙ্গুরসহ তাদের লোকজন জড়িত।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত মোল্লা মোহাম্মদ দুলালের মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করা হয়। কিন্তু ফোন বন্ধ থাকায় তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) রকিবুজ্জামান বলেন, খরব পেয়ে একটার দিকে গুরুতর আহত অবস্থায় ছাত্রলীগ নেতা ফারুক হোসেন মিরুকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক রাতেই তাকে জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতালে(পঙ্গু) স্থানান্তর করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায়  মঙ্গলবার দুপুরে মারাযান তিনি। এঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।

মানিকগঞ্জ পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম জানান, হত্যাকা-টি নিয়ে থানা পুলিশ তদন্ত করছেন। আশা করছি, দ্রুত এই হত্যাকা-ের কারণ জানা যাবে।  ঘাতকদের গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চলছে।

আরও পড়ুন