২৫শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থানে সিঙ্গাইর উপজেলা প্রশাসন দায়িত্ব গ্রহণ করলেন মানিকগঞ্জ নবাগত জেলা প্রশাসক আব্দুল লতিফ করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ‘ডেল্টা প্লাস’নিয়ে কেন এত শঙ্কা গোটা বিশ্বের? রাশিয়াকে উড়িয়ে নকআউট পর্ব নিশ্চিত করলো ডেনমার্ক সিঙ্গাইরে শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা আত্মসাৎ, নগদ এজেন্ট মালিককে অর্থদণ্ড প্রথম দিনে নাম নিবন্ধন করেছে ১৯৪জন পাসপোর্ট নাম্বার বিহীন লেবানন প্রবাসী সিঙ্গাইরে ট্রাকচাঁপায় মটরসাইকেল চালকের মৃত্যু একদিন নয়, প্রতিদিন হোক বাবা দিবস ব্র্যাকের মানবিধকার ও আইন সচেতনতা বিষয়ক মতনিময় সভা পরীমনির বাসা যেন মদের বার, প্রতিদিনই বসে আসর

সিঙ্গাইর উপজেলা প্রকৌশলী জামান পাচ্ছেন জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার

মোবারক হোসেন:

জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার ২০২০-২০২১ পাচ্ছেন মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর উপজেলা প্রকৌশলী মুহাম্মদ রুবাইয়াত জামান। দেশের ৪৯২ জন উপজেলা প্রকৌশলীর মধ্যে একমাত্র তিনি এই পুরস্কারের জন্য মনোনীত হন। বৃহস্পতিবার (২৭ মে) জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান নীতিমালা-২০১৭ অনুযায়ী স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) প্রধান প্রকৌশলী মো. আব্দুর রশিদ স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশের মাধ্যমে এই তথ্য জানানো হয়।

উপজেলা প্রকৌশলী মুহাম্মদ রুবাইয়াত জামান ছাড়াও স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) বিভিন্ন পর্যায়ের আরও ১৩ ক্যাটাগরিতে ১৩ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার ২০২-২০২১ এর জন্য মনোনীত হয়েছেন।

এদিকে জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কারের জন্য মনোনীত হওয়ায় তাঁকে উষ্ণ অভিনন্দন জানিয়েছেন মানিকগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য কণ্ঠশিল্পী মমতাজ বেগম ও মানিকগঞ্জ স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তরের (এলজিইডি) নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ফয়জুল হকসহ স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী, গণমাধ্যমকর্মী, বন্ধু-বান্ধব, শুভাকাঙ্খী এবং সমাজের নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ।

মুহাম্মদ রুবাইয়াত জামান সিঙ্গাইর উপজেলা প্রকৌশলী হিসেবে যোগদানের পর হতে সততা ও কর্তব্যনিষ্ঠার সঙ্গে উপজেলার গ্রামীণ যোগাযোগ ব্যবস্থা ও অবকাঠামো উন্নয়নে নিরালসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি এই উপজেলায় যোগদান করার পর গ্রামীণ সড়ক ও অবকাঠামো নির্মাণকাজের গুণগতমান বৃদ্ধি পায়। গতিশীল হয় উন্নয়ন।

এছাড়া কর্মজীবনের সর্বত্রই অসামান্য অবদান ও সততার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত রেখেছেন তিনি। এর স্বীকৃতি স্বরূপ জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান নীতিমালা-২০১৭ অনুযায়ী তাকে এই পুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হয়। পুরস্কার হিসেবে তিনি পাবেন একটি সনদপত্র, একটি ক্রেস্ট ও এক মাসের মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থ।

যেসব গুণাবলীর জন্য শুদ্ধাচার পুরস্কার দেওয়া হয়
সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীর পেশাগত জ্ঞান ও দক্ষতা, সততার নিদর্শন স্থাপন করা, নির্ভরযোগ্যতা ও কর্তব্যনিষ্ঠা, শৃঙ্খলাবোধ, সহকর্মীদের সঙ্গে আচরণ, সেবাগ্রহীতার সঙ্গে আচরণ, প্রতিষ্ঠানের বিধিবিধানের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকা, সমন্বয় ও নেতৃত্বদানের ক্ষমতা, তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারে পারদর্শিতা, পেশাগত স্বাস্থ্য ও পরিবেশ বিষয়ক নিরাপত্তা সচেতনতা, ছুটি গ্রহণের প্রবণতা, উদ্ভাবনী চর্চার সক্ষমতা, বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি বাস্তবায়নে তৎপরতা, সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার, স্বপ্রণোদিত তথ্য প্রকাশে আগ্রহ, উপস্থাপন দক্ষতা, ই-ফাইল ব্যবহারে আগ্রহ, অভিযোগ প্রতিকারে সহযোগিতা করা।

গেজেটে আরো বলা হয়, শুদ্ধাচার পুরস্কার পাওয়ার ক্ষেত্রে সরকারি কর্মচারীকে উল্লিখিত সূচকের ১০০ নম্বরের মধ্যে অবশ্যই ৮০ নম্বর পেতে হবে। এটি না পেলে ওই কর্মচারী এ পুরস্কার পাওয়ার জন্য প্রাথমিকভাবে বিবেচিত হবেন না। আর বিবেচিত কর্মচারীদের মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বর পাওয়া কর্মচারী শুদ্ধাচার পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত হবেন।

আরও পড়ুন