১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
লেবানন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত সিঙ্গাইরে দেয়ালে অঙ্কিত বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলনের আজ শুভ জন্মদিন বিএনপির ৪৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে মালয়েশিয়ায় ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত যে কারণে হত্যার শিকার শিশু আল-আমীন, রহস্য উদঘাটন সিঙ্গাইর থানার ওসির পিতার মাগফিরাত কামনায় দোয়ার মাহফিল কানাডা প্রবাসী প্রয়াত জয়নুল আবেদীন স্বরণে দোয়ার মাহফিল তিনদিন পর সিঙ্গাইরে নিখোঁজ শিশুর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার মজিবুর রহমান মোল্যার মাগফিরাত কামনায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিল মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে সিঙ্গাইরে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা

সিঙ্গাইর পৌর এলাকায় ন্যায্য মুল্যে ওএমএস’র চাল ও আটা বিক্রি শুরু

মোবারক হোসেন:

মোবারক হোসেন:

সারাদেশের ন্যায় মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর পৌর এলাকায় স্বল্প আয়ের মানুষের খাদ্যের মৌলিক চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে ন্যায্য মূল্যে খোলা বাজারে (ওএমএস) চাল ও আটা বিক্রির কার্যক্রম শুরু হয়েছে। শনিবার (২৫ জুলাই) এই চাল-আটা বিক্রি কার্যক্রম আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করেন পৌর মেয়র আবু নাঈম মো: বাশার। শুক্রবার ও সরকারি ছুটির দিন ব্যতীত সপ্তাহে ৬ দিন এই কার্যক্রম চলবে।

জানা গেছে, ঘোষিত লকডাউনের মধ্যে স্বল্প আয়ের মানুষের খাদ্যের মৌলিক চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে দেশের বিভাগীয়, জেলা ও পৌর শহরগুলোতে ন্যায্য মূল্যে খোলা বাজারে (ওএমএস) চাল ও আটা বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।

এরই অংশ হিসেবে শনিবার (২৫ জুলাই) সিঙ্গাইর পৌর শহরে তিনটি বিক্রয়কেন্দ্রে ন্যায্য মূল্যে খোলা বাজারে (ওএমএস) চাল ও আটা বিক্রি শুরু করে। এদিন এই চাল-আটা বিক্রি কার্যক্রম আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করেন পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট আবু নাঈম মো: বাশার।

পৌর মেয়র বলেন, লকডাউনে ন্যায্য মূল্যে খোলা বাজারে (ওএমএস) চাল ও আটা বিক্রি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত। সমাজের নিম্ন আয় ও অভাবী মানুষের কথা চিন্তা করে তিনি এই সময়োপযোগগী উদ্যোগ নিয়েছেন। করোনাকালীণ সময়ে ওএমএস’র কার্যক্রমে নিম্ন আয়ের মানুষ উপকৃত হবেন।

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, পৌর এলাকায় ওএমএস চাল ও আটা বিক্রির জন্য তিনজন ডিলার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। তারা প্রত্যেকে প্রতিদিন দেড় মেট্রিক টন চাল ও এক মেট্রিক টন আটা বরাদ্ধ পাবেন। স্বাস্থ্য বিধি মেনে এই চাল ও আটা বিক্রি করতে হবে। প্রতিকেজি চাল ৩০ ও প্রতিকেজি আটার মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৮ টাকা। প্রত্যেক গ্রাহক ৫ কেজি চাল ও ৫ কেজি আটা সরকার নির্ধারিত মুল্যে ক্রয় করতে পারবে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত পৌর এলাকায় তিনটি বিক্রয়কেন্দ্রে এসব চাল আটা বিক্রি হবে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন