২১শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
  • প্রচ্ছদ
  • হরিরামপুরে বাল্লা ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সদস্যদের অনাস্থা




  • হরিরামপুরে বাল্লা ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সদস্যদের অনাস্থা

    মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলার ১নং বাল্লা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব কাজী রেজার বিরুদ্ধে অনাস্থা জানিয়েছেন ১১ ইউপি সদস্য। ইউপি সদস্যদের সাথে অসদাচরণ, ক্ষমতার অপব্যবহার, সরকারি অর্থ লুটপাটসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে গত রবিবার (১৭ মে ) অনস্থা প্রকাশ করে ইউপি চেয়ারম্যানের অপসারণের দাবি জানিয়ে জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন তারা।

    অনস্থা পত্রে ইউপি সদস্যরা অভিযোগ করেন, চেয়ারম্যান কাজী রেজা সব সময় পরিষদের সদস্যদের সাথে খারাপ আচরণ ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। অন্যায়ের প্রতিবাদ করায় অনেক সদস্যের শরীরে হাতও তুলেছেন। চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে গৃহহীনদের ঘর বরাদ্দ, মাতৃত্বকালীন ভাতা, টিআর, কাবিখা, কাবিটা, অতিদরিদ্র ব্যক্তিদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচি ও এলজিএসপিসহ বিভিন্ন প্রকল্পের কাজে অনিয়ম-দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ আনা হয়। অভিযোগ আরো উল্লেখ করা হয়, ২০১৯ সালে ভুয়া একটি সংস্থার মাধ্যমে জনগণের নিকট হতে ট্যাক্স বাবদ আদায়কৃত প্রায় ১২ লক্ষ টাকা ইউনিয়ন পরিষদের তহবিলে জমা না দিয়ে আত্মসাত করেন চেয়ারম্যান। এছাড়া ত্রাণ কার্যক্রমে ইউপি সদস্যদের সাথে কোন প্রকার সমন্বয় করা হয়না। ত্রান বিতরণের সময় পরিবহন খরচ বাবদ চারশত টাকা জোরপূর্বক চাঁদা আদায় করা হয়। চেয়ারম্যানের এসব অনৈতিক কাজের প্রতিবাদ করলে তার সন্ত্রাসী বাহিনীর লোকজন দ্বারা সদস্যদের ভয়-ভীতি দেখানো হয় বলে জানান ইউপি সদস্যরা।

    চেয়ারম্যান কাজী রেজাকে মানসকি বিকাগ্রস্থ, দূর্নীতিবাজ, সন্ত্রাসী আখ্যা দিয়ে তাকে অপসারন ও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানিয়ে লিখিত অনাস্থাপত্রে স্বাক্ষর করেন ইউপি সদস্য মোঃ মোতাহার হোসেন, মোঃ মজিবর রহমান, মোঃ মজিবর রহমান, মহিদুর রহমান খান, আব্দুল করিম, মোঃ নুরুল ইসলাম, মিজানুর রহমান, মোঃ মনিরুল হক, সামসুনাহার. বিলকিস বেগম ও বাছিয়া আক্তার।

    এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে চেয়ারম্যান কাজী রেজা নির্দোষ দাবি করে বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ভিত্তিহীন। এটি একটি সাজানো নাটক। অনৈতিক সুবিধা আদায় করতে ব্যর্থ হয়ে ইউপি সদস্যরা আমার সুনাম নষ্ট ও হয়রানি করার জন্য অপচেষ্টা করছেন।

    Print Friendly, PDF & Email

    আরও পড়ুন