২৬শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |
  • প্রচ্ছদ
  • হাসপাতাল থেকে নাসিমের জানাজায় জাফরুল্লাহ চৌধুরী




  • হাসপাতাল থেকে নাসিমের জানাজায় জাফরুল্লাহ চৌধুরী

    সদ্যই করোনা নেগেটিভ হয়েছেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। নেগেটিভ প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরই চিকিৎসককে সাথে নিয়ে জয়সূচক অভিব্যক্তি করেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফরমে সেই ছবি ছড়িয়ে পড়ে। এর একদিন পরেই ধানমন্ডির গণস্বাস্থ্য নগর ভবন হাসপাতালের চার তলা থেকে কাউকে না জানিয়ে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের জানাজায় উপস্থিত হয়ে যান ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী । খবর পেয়ে তাঁর পেছনে পেছনে স্যালাইন ও চিকিৎসা সামগ্রী নিয়ে উপস্থিত হন চিকিৎসকেরা। পরে তাকে স্যালাইন দেওয়া হয়।

    জানাজায় অংশগ্রহণের বিষয়টি কালের কণ্ঠকে নিশ্চিত করেছেন গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. ফরহাদ। রবিবার সকাল ১০টা ২০ মিনিটে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে তার দ্বিতীয় নামাজে জানাজা হয়। জানাজা শেষে মরহুমের প্রতি ঢাকা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। এর আগে সকাল ৯টায় রাজধানীর সোবহানবাগ জামে মসজিদে মোহাম্মদ নাসিমের প্রথম নামাজে জানাজা হয়।

    জানা গেছে, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বনানী কবরস্থানে চলে আসেন। সেখানে তিনি নাসিমের জানাজায় অংশ নেন। গার্ড অব অনার প্রদর্শনের সময় প্রয়াত নাসিমের শ্রদ্ধার উদ্দেশ্যে স্যালুট দেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

    এর আগে জাফরুল্লাহ নাকি তাঁর চিকিৎসককে বলেছেন, ‘আমি যদি মোহাম্মদ নাসিমের জানাজায় গিয়ে মারাও যাই, তবুও আমি তার জানাজায় যেতে চাই।

    জানা গেছে, ডা. জাফরুল্লাহর ও মোহাম্মদ নাসিম একসময় দেশের স্বাস্থ্যখাত নিয়ে একসঙ্গে কাজ করেছেন। তাদের মধ্যে দীর্ঘদিনের সুসম্পর্ক ছিল। সেই সম্পর্কের তাগিদেই অসুস্থতা সত্ত্বেও তিনি মোহাম্মদ নাসিমের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ছুটে আসেন। তবে এ সময় গণমাধ্যমের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি ডা. জাফরুল্লাহ।

    ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী করোনামুক্ত হলেও আজ তার নমুনা আরো দুটি স্পেশালাইজড হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। ডা. জাফরুল্লাহ ২৫ মে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ল্যাবরেটরিতে উদ্ভাবিত র্যাপিড ডট ব্লট কিট দিয়ে পরীক্ষা করে আক্রান্তের ব্যাপারে জানতে পারেন।

    এদিকেসাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম শ্বাসকষ্ট নিয়ে ১ জুন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। পরে তার করোনা ভাইরাস পজিটিভ আসে। এরপর ৫ জুন ভোররাতে ব্রেন স্ট্রোক হয়। অস্ত্রোপচারের পর থেকেই অচেতন অবস্থায় ছিলেন মোহাম্মদ নাসিম।

    Print Friendly, PDF & Email

    আরও পড়ুন