২৩শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
সিঙ্গাইরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা সিঙ্গাইরে ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মিঠু গ্রেফতার সিঙ্গাইরে ১১ ইউপিতে ৪৬ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল পাবজি খেলা নিয়ে দ্বন্দ্ব, সিঙ্গাইরে বন্ধুর হাতে প্রাণ গেল কিশোরের স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র ছিনতাইয়ের অভিযোগে আ.লীগ প্রার্থীর ছেলে আটক সিঙ্গাইরে শিশু বলাৎকার মামলার প্রধান আসামী মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেফতার লেবাননে ফের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, প্রবাসীদের উপচেপড়া ভির লেবানন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত সিঙ্গাইরে দেয়ালে অঙ্কিত বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলনের আজ শুভ জন্মদিন
গত সপ্তাহেই উন্মুক্ত করেছেন এই টেস্ট স্টিক

নতুন আবিষ্কার, মাত্র ১৫ মিনিটেই হবে করোনাভাইরাস টেস্ট

লাইটনিউজ ডেস্ক : কেউ প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন কি না তা মাত্র ১৫ মিনিটেই নির্ণয় করার পদ্ধতি বের করেছে একটি ডাচ প্রতিষ্ঠান। অনেকটা প্রেগন্যান্সি টেস্টের মতো রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমেই খুব সহজে বোঝা যাবে তিনি কোভিড-১৯ আক্রান্ত কি না।

সেনসিটেস্ট নামে ওই প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী রবার্ট ডাস জানান, তাদের পরীক্ষা পদ্ধতি কার্যকর হলেও এতে কিছুটা সীমাবদ্ধতাও আছে। কেউ আক্রান্ত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই টেস্ট করলে বিষয়টি ধরা পড়বে না। এজন্য কিছুদিন পরে টেস্ট করাতে হবে।

তিনি জানান, সেনসিটেস্টের পরীক্ষা পদ্ধতি খুবই সহজ ও সাধারণ। আক্রান্ত হওয়ার পর রোগীর শরীরে স্বয়ংক্রিয়ভাবেই ভাইরাসপ্রতিরোধী আইজিজি ও আইজিএমের মতো অ্যান্টিবডি তৈরি হয়। কারও শরীরে এই অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে কি না তা টেস্টের মাধ্যমেই মূলত করোনার উপস্থিতি সম্পর্কে নিশ্চিত হচ্ছেন তারা।

রবার্ট বলেন, এটা অনেকটা প্রেগন্যান্সি টেস্টের মতো। আগেভাগে টেস্ট করালে ফলাফল নেগেটিভ আসবে। কিন্তু শরীরে যথেষ্ট পরিমাণে অ্যান্টিবডি তৈরি হলে মাত্র ১৫ মিনিটেই টেস্টের ফল পজেটিভ দেখাবে।

‘তবে, কেউ সুস্থ হয়ে ওঠার পরেও টেস্টের ফলাফল পজেটিভ দেখাবে। কারণ তখনও তার শরীর আইজিজি দিয়ে সুরক্ষিত।’

সেনসিটেস্টের এ কর্মকর্তা জানান, তারা গত সপ্তাহেই উন্মুক্ত করেছেন এই টেস্ট স্টিক। তবে আপাতত শুধু নেদারল্যান্ডসের চিকিৎসকদের কাছেই সেগুলো পাঠানো হচ্ছে। সরকারি সহযোগিতা পেলে অল্প সময়ের মধ্যেই এটি সারাবিশ্বে পৌঁছে দেয়া সম্ভব বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির প্রধান।

শুরু হয়েছিল চীনে, এরপর মাত্র তিন মাসের মধ্যেই বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। এতে আক্রান্ত হয়েছেন চার লাখেরও বেশি মানুষ, মারা গেছেন অন্তত ১৮ হাজার। বেশিরভাগ দেশই ভুগছে করোনার টেস্টিং কিট স্বল্পতায়। এমন মুহূর্তে দ্রুত পরীক্ষা করার মতো উপকরণ সবচেয়ে জরুরি হয়ে উঠেছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

সূত্র: ডেইল মেইল

আরও পড়ুন